পাহাড়ি পথ ছেড়ে জলপথে হামলা চালাতে পারে চীন, আগেভাগেই সতর্ক হল ভারতের নৌসেনা বিভাগ

9
পাহাড়ি পথ ছেড়ে জলপথে হামলা চালাতে পারে চীন, আগেভাগেই সতর্ক হল ভারতের নৌসেনা বিভাগ

লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা ছড়াচ্ছে চীন। তবে চীনের সেনাবাহিনী শুধুমাত্র পাহাড়ি এলাকাতেই ঘাঁটি গেড়ে আছে এমনটা নয়। ভারতীয় সেনাবাহিনীর সন্দেহ, লাদাখের পাশাপাশি সমুদ্রপথেও ভারতের উপর আক্রমণ চালাতে পারে পিপলস লিবারেশন আর্মির নৌ সেনা জওয়ানেরা। বিশেষ করে ভারত মহাসাগরের উপর চীনা সেনাবাহিনীর কার্যকলাপ চোখে পড়ছে। এমতাবস্থায় তাই সমুদ্র পথেও জোর নজরদারি চালাচ্ছে ভারত।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই লাদাখে শীত নামতে শুরু করে দিয়েছে। প্রায় ১৭ হাজার ফিটেরও বেশি উচ্চতায় অবস্থিত লাদাখে এমনিতেই বছরের সব সময় চরম শীত বিরাজ করে। কিন্তু শীতকালে ওই অঞ্চলের উষ্ণতা হিমাঙ্কের নিচে নেমে যায়। এইরকম প্রতিকূল আবহাওয়ায় টিকে থাকা চীনা সেনাবাহিনীর পক্ষে দুষ্কর। তাই, ভারতীয় সামরিক দপ্তরের আশঙ্কা, হয়তো পাহাড়ি পথ ছেড়ে এবার জলপথে ভারতের উপর হামলা চালাতে পারে চীন।

ফলে, আগেভাগেই সতর্ক হয়েছে ভারতের নৌসেনা বিভাগ। বিশেষ করে সমুদ্র উপদ্বীপীয় অঞ্চলে নজরদারি আরো বাড়ানো হয়েছে। উল্লেখ্য, আগামী তেসরা নভেম্বর কোয়াডের অন্তর্ভুক্ত দেশ গুলি অর্থাৎ ভারত, আমেরিকা, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার মতো চীন বিরোধী দেশগুলি ভারত মহাসাগরের বুকে নৌ-মহড়ায় অংশগ্রহণ করতে চলেছে। ভারতীয় সামরিক দপ্তর সূত্রে খবর, ইস্টার্ন ন্যাভাল কমান্ড এবং ওয়েস্টার্ন ন্যাভাল কমান্ডকে গুরুত্ব দিতেই এই নৌমহড়ার আয়োজন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ভারত মহাসাগরে প্রবেশ করার জন্য চীনের কাছে একমাত্র পথ হলো মালাক্কা প্রণালী। তাই মালাক্কা প্রণালীর উপর নজরদারি আরো বাড়িয়েছে ভারত। ভারতের অনুমান, জলপথে আক্রমণ চালানোর জন্য এই পথ ব্যবহার করতে পারে চীন। উল্লেখ্য, চীনের আগ্রাসী দৃষ্টি ভারত মহাসাগরের উপরেও বিদ্যমান। তাই, ভারত মহাসাগরের সুরক্ষা ব্যবস্থা আরও মজবুত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের সেনাবাহিনী।