আজব কাণ্ড ঘটালেন চন্দনা বাউরী! স্বামী-সন্তান ছেড়ে ড্রাইভারের সঙ্গে পালিয়ে করলেন বিয়ে

134
আজব কাণ্ড ঘটালেন চন্দনা বাউরী! স্বামী-সন্তান ছেড়ে ড্রাইভারের সঙ্গে পালিয়ে করলেন বিয়ে

বিধায়ক হওয়ার চার মাসের মাথাতেই রীতিমতো যেন বিস্ফোরণ ঘটালেন শালতোড়ার বিজেপি বিধায়ক চন্দনা বাউরী। স্বামী এবং দুধের সন্তানকে বাড়িতে ফেলে রেখে নিজের ড্রাইভারের সঙ্গে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করলেন তিনি! এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে রীতিমতো যেন বাজ পড়লো বিজেপি শিবিরে। কারণ চন্দনা বাউরীর এমন কীর্তিকলাপে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওই এলাকায়।

দলীয় কর্মী সমর্থকদের অনেকেই চন্দনা বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছেন। শোনা যাচ্ছে গত বুধবার রাতে নিজের গাড়ির চালক কৃষ্ণ কুন্ডুর সঙ্গে পালিয়ে গিয়ে একটি মন্দিরে বিয়ে করে নেন চন্দনা। বিষয়টি যখন তার স্বামীর কানে আসে তখন তিনি রীতিমতো হতচকিত হয়ে পড়েন। কি করবেন বুঝে উঠতে না পেরে শেষমেশ গঙ্গাজলঘাঁটি থানায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। তারপর এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

শোনা যাচ্ছে, বিধায়ক হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই নাকি চন্দনা বাউরীর জীবনযাত্রায় অনেক পরিবর্তন এসেছিল। কৃষ্ণ কুন্ডুর সঙ্গে তার সম্পর্ক ক্রমশ ঘনীভূত হয়। সেই সম্পর্ক এতটাই গভীর হয়ে পড়েছিল যে শেষমেষ বুধবার চুপিসারে বিয়ে করে নেন তারা। যদিও এই দাবি চন্দনা পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন। তার দাবি তাকে চক্রান্ত করে ফাঁসানো হচ্ছে। স্বামীর সঙ্গে সামান্য মনোমালিন্য হয়েছিল। তার জন্যই তার স্বামীর থানায় গিয়ে তার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেছেন।

এদিকে কৃষ্ণ কুন্ডুর স্ত্রীও ইতিমধ্যেই থানায় এসে পৌঁছেছেন। তিনিও চন্দনা বাউরী এবং নিজের স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন। চন্দনাকে আপাতত তার প্রথম স্বামীর সঙ্গেই বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। চন্দনা এই ঘটনার সত্যতা অস্বীকার করলেও বাঁকুড়ার পুলিশ সুপার দ্বিতীয় বিবাহের ঘটনাটি সত্য বলেই দাবি করেছেন।