উত্তরবঙ্গ জুড়ে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা! সতর্কবার্তা জারি করলো আবহাওয়া দপ্তর

7
উত্তরবঙ্গ জুড়ে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা! সতর্কবার্তা জারি করলো আবহাওয়া দপ্তর

আজ সকাল থেকেই আকাশের মুখ ভার। যদিও গত বেশ কয়েকদিন ধরেই হালকা অথবা মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর পাওয়া গেছে, বজ্রবিদ্যুৎ সহ দু-এক পশলা বৃষ্টির সম্ভাবনা ছাড়া সেইরকম ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। তবে রবিবার থেকে বৃষ্টি বাড়বে মধ্য ভারতের উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলি তে।

মৌসুমী অক্ষ রেখা দক্ষিণ দিকে সরে যাবার ফলে উত্তরবঙ্গ জুড়ে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টিপাতের ফলে শিলিগুড়ি শহরের বেশ কিছু এলাকা জলমগ্ন হয়ে গেছে। পাশাপাশি পাহাড়জুড়ে ক্রমশ বৃষ্টিপাতের ফলে বেশ কয়েকটি জায়গায় ধ্বস নেমেছে। শিলিগুড়ি এবং সিকিমের লাইফলাইন ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের ২৯ মাইলে ধ্বস পড়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গের বাসিন্দারা বেশ কিছুদিন ধরে ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস করছিল, এই বৃষ্টিপাত কিছুটা হলেও স্বস্তি এনে দিয়েছে সকলকে। দক্ষিণবঙ্গে মেঘলা আকাশ এবং বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে আগামী বেশ কয়েকদিন। আসাম এবং মেঘালযে প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস জানিয়েছেন আবহাওয়া দপ্তর। কর্ণাটক তামিলনাড়ু এবং কেরালাতে রবিবার এবং সোমবার প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, পাশাপাশি মধ্যে ভারত এবং উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলি তে বৃষ্টিপাত বাড়বে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া দপ্তর।

আবহাওয়া দফতর সূত্র অনুযায়ী, হালকা অথবা মাঝারি বৃষ্টি হলে আস্তে আস্তে তাপমাত্রা কমেছে। রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি উপরে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.০ ডিগ্রী। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি উপরে। অপরদিকে আদ্রতা বেড়ে অস্বস্তি ভাবটা রয়েই গিয়েছে। শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৫ শতাংশ। সর্বনিম্ন ৬৭ শতাংশ।

শনিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১.০ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬.৪ ডিগ্রী। শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৭ শতাংশ। সর্বনিম্ন ৮৪ শতাংশ।

শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৮ ডিগ্রি সেলসিয়ার্স। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি বেশী। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৫ ডিগ্রী। স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি নীচে রয়েছে। শহরের বাতাসে জলীয়বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯৮ শতাংশ। সর্বনিম্ন ৭৩ শতাংশ।