আমদানি শুল্ক কমালো কেন্দ্র সরকার! শীঘ্রই দাম কমতে চলেছে মুসুরির ডালের

21
আমদানি শুল্ক কমালো কেন্দ্র সরকার! শীঘ্রই দাম কমতে চলেছে মুসুরির ডালের

করোনা পরবর্তী সময় থেকেই নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম ক্রমশ বেড়েই চলছিল। তবে এবার জানা গিয়েছে যে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপে মুসুরির ডালের দাম খুব শীঘ্রই কমতে চলেছে। নিম্নবিত্ত থেকে শুরু করে মধ্যবিত্ত মানুষদের শরীরে প্রোটিন চাহিদা পূরণ করার জন্য ডালের ভূমিকা কিছু কম নয়। তবে ডালের দাম প্রতিনিয়ত বেড়ে যাওয়াতে মধ্যবিত্তের কপালে ভ্রূকুঞ্চন দেখা দিয়েছিল। এতদিনে অবশ্য কেন্দ্রীয় সরকারের হস্তক্ষেপে মুসুরির ডালের দাম কমছে।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে মুসুরির ডালের উপর থেকে আমদানি শুল্ক তুলে নেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে আবার মুসুরের উপর কৃষি অবকাঠামো উন্নয়ন উপকরকে অর্ধেক কমিয়ে দশ শতাংশ করা হয়েছে যা মুসুরির ডালের দাম কমাতে কার্যকরী হবে। দেশীয় বাজারে ডালের যোগান বাড়ানো এবং ক্রমবর্ধমান দাম কমানোর উদ্দেশ্যে কার্যত কেন্দ্রের তরফ থেকে এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

অর্থমন্ত্রীর নির্মলা সীতারামন সম্প্রতি এই মর্মে রাজ্যসভায় একটি প্রজ্ঞাপন প্রবর্তন করেছেন। তিনি সেই প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করেছেন আমেরিকা ছাড়া অন্য দেশগুলি থেকে আমদানি করা মুসুরের মূল শুল্ককে ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে শূন্য করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে আগত মুসুরির ডালের উপর আমদানি শুল্ক ৩০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ করা হয়েছে। বর্তমানে মুসুরির ডালের কেজি প্রতি দাম ৩০ শতাংশ বেড়ে ১০০ টাকায় পৌঁছেছে। চলতি বছরের পয়লা এপ্রিল সেই দাম ছিল ৭০ টাকা।

ইন্ডিয়া গ্রেনস অ্যান্ড ডালস অ্যাসোসিয়েশনের (আইজিপিএ) সহ সভাপতি বিমল কোঠারি জানালেন, ভারতে প্রতিবছর ২৫ মিলিয়ন টন ডালের প্রয়োজন হয়। উল্লেখ্য, কৃষি অবকাঠামো উন্নয়নে পেট্রোল, ডিজেল, স্বর্ণ এবং কিছু আমদানি করা কৃষি পণ্য সহ কয়েকটি পণ্যের উপর কৃষি পরিকাঠামো ও উন্নয়ন উপকরণ (এআইডিসি) বাস্তবায়ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্র। এবার মুসুরির ডালকে সেই কর কাঠামোর বাইরে আনা হতে চলেছে।