মুকুল রায়ের তৃণমূল ঘনিষ্ঠতা নিয়ে মুখ খুললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ

58
মুকুল রায়ের তৃণমূল ঘনিষ্ঠতা নিয়ে মুখ খুললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি বলতে গেলে তৃণমূলের কাছে একেবারে গো-হারান হেরে গিয়েছে। একুশে বিজেপির বাংলা দখলের স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গিয়েছে। ২৯৪টি আসনের মধ্যে থেকে অন্তত ৭৭টি আসনে সাড়া ফেলতে পেরেছে বিজেপি। একুশের এই লড়াইয়ে বিজেপির তরফের সৈনিক হয়েছিলেন এককালীন মমতা ঘনিষ্ঠ মুকুল রায়। তবে বর্তমানে কিন্তু পরিস্থিতির কিছুটা বদল দেখা যাচ্ছে।

একুশের লড়াইয়ের পর বর্তমানে বিজেপির এই হেভিওয়েট নেতা কিন্তু ফের বিজেপিকে এড়িয়ে তৃণমূলের সঙ্গেই ঘনিষ্ঠতা বাড়ানোর চেষ্টা করছেন। গতকাল বিধানসভায় বিজেপির তরফের নবনির্বাচিত বিধায়কদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানেও বিজেপির নেতৃত্বকে এড়িয়ে গিয়েছেন মুকুল রায়। সংবাদমাধ্যমের কাছে ধরা পড়েছে সেই ছবি। বদলে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সঙ্গেই সখ্যতা বাড়াতে দেখা গিয়েছে তাকে।

এমতাবস্থায় তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি তার জবাবে বলেন, “যা বলার পরে ডেকে বলবো”। তার এই জবাবের পরিপ্রেক্ষিতে গুঢ় অর্থ খুঁজে পাচ্ছে রাজনৈতিক মহল। মুকুল রায়ের এমন অবস্থানের পরিপ্রেক্ষিতে এবার সাফাই দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, দল হেরে যাওয়াতে অভিমান হয়েছে মুকুলের। তবে শীঘ্রই সেই অভিমান কেটে যাবে বলে আশ্বস্ত করেছেন দিলীপ ঘোষ।

দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, মুকুল রায়ের সঙ্গে তৃণমূলের তরফের বহু নেতাকর্মী দীর্ঘদিনের সদ্ভাব। প্রথমবার বিজেপির তরফের বিধায়ক হিসেবে বিধানসভা পৌঁছেছেন মুকুল রায়। তাই তিনি যে তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর সঙ্গে কথা বলবেন, এটাই স্বাভাবিক। এরমধ্যে অস্বাভাবিকতা কিছু খুঁজে পাচ্ছেন না দিলীপ ঘোষ।