বিমল গুরুংয়ের মন্তব্যে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু

6
বিমল গুরুংয়ের মন্তব্যে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু

দীর্ঘ তিন বছর পর গতকাল বিধান নগরের গোর্খা ভবনের সামনে দার্জিলিংয়ের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার নেতা বিমল গুরুংয়ের দেখা পাওয়া গিয়েছে। তবে গোর্খা ভবনে প্রবেশ করতে না পেরে কলকাতায় হাজির হন বিমল গুরুং। কলকাতায় এসেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূয়শী প্রশংসা করেছেন তিনি। পাশাপাশি, বিজেপির বিরোধিতা করে আগামী একুশের নির্বাচনে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মমতা ব্যানার্জিকেই দেখতে চেয়েছেন তিনি।

বিমল গুরুংয়ের এই মন্তব্যকে সমর্থন করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে ছড়িয়েছেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। উল্লেখ্য, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার নেতা বিমল গুরুং এককালে বিজেপি ঘনিষ্ঠ ছিলেন। এনডিএ জোট সরকারের সঙ্গে জোট বেঁধে ছিলেন তিনি। তবে, “দীর্ঘ ছয় বছরে বিজেপি দার্জিলিংয়ের জন্য কোনো প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি”, এই অভিযোগ তুলে এনডিএ জোট সরকারের সংশ্রব ত্যাগ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন বিমল গুরুং।

বিমল গুরুংয়ের এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির তরফ থেকে বিমানের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগের আঙ্গুল তোলা হয়েছে। তার বক্তব্য অনুসারে, বিমল গুরুংয়ের অভিযোগ বিজেপি প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি। তাহলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি গোর্খাল্যান্ডের দাবি মেনে নিয়েছেন? সায়ন্তন বসু এ প্রসঙ্গে তৃণমূলকেও এক হাত নিয়েছেন। তার অভিযোগ, বিমল গুরুংয়ের সঙ্গে বিজেপির জোট বাঁধাকে কেন্দ্র করে বাংলা ভাগের অভিযোগ তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শাসক দলের প্রতি তার প্রশ্ন, তাহলে কি তিন আসনে জন্য বাংলা ভাগ মেনে নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। সায়ন্তন বসু দাবী, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার নেতা বিমল গুরুং এখনো গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে অনড়। শাসক দলের সঙ্গে তার নিশ্চয়ই কোনো গোপন সন্ধি হয়েছে। তাই তৃণমূলের প্রতি এই অবস্থান নিয়েছেন তিনি। মমতা ব্যানার্জির প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিমল গুরুং বলেছেন, দার্জিলিঙ নিয়ে মমতা যে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি তা পালন করেছেন।