৫০টা আসনেও জিততে পারবেনা বিজেপি! কটাক্ষ মমতার

7
৫০টা আসনেও জিততে পারবেনা বিজেপি! কটাক্ষ মমতার

একুশের নির্বাচনে বাংলা দখলের লড়াইয়ে মরিয়া বিজেপি। গেরুয়া শিবির বাংলায় এই দফায় ২০০টিরও বেশি আসনে জেতার স্বপ্ন দেখছে। মমতা সরকারের দশ বছরের শাসনকালের ইতি ঘটিয়ে বাংলায় গেরুয়া পতাকা উত্তোলনের স্বপ্ন দেখছে বিজেপি। তবে ২০০ আসন তো দূরের কথা, একুশের লড়াইয়ে ৫০টা আসনেও জিততে পারবেনা বিজেপি! বিজেপিকে কটাক্ষ করে সম্প্রতি এমনই মন্তব্য করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আগামী ৬ই এপ্রিল তৃতীয় দফায় নির্বাচন হবে রাজ্য জুড়ে। এই দফায় খানাকুলের ভোট পর্ব সম্পন্ন হবে। তার আগে রবিবার খানাকুলের প্রচার সভায় অংশগ্রহণ করলেন তৃণমূল নেত্রী। সেখানেই বিজেপির প্রতি তোপ দেগে তার মন্তব্য, “আগে তো ৫০ টা আসনে জিতে দেখান! তারপরেই না হয় ২৯৪টি আসনের কথা চিন্তা করবেন!” এদিনের ভোটের প্রচার সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিক ইস্যু নিয়ে বিজেপিকে কার্যত তুলোধোনা করেছেন।

ভোটের আগে রাজ্যে বার বার পুলিশের বদলি প্রসঙ্গে বিজেপিকে বিঁধেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। যাদের সরানো হয়েছে তাদের অপরাধ কি? খানাকুলের সভায় প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ, পরিকল্পনা করেই রাজ্যের আইপিএস অফিসারদের সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তাদের জায়গায় দায়িত্ব পাচ্ছেন বিজেপির দালালরা।

বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করার অভিযোগও তুলেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, শনিবার হরিপালের সভা থেকে রাজ্য সরকারি কর্মীদের কেন্দ্রীয় সরকারের কিষান সম্মান নিধি যোজনার আওতায় রাজ্যের নামের কৃষকদের তালিকা তৈরির পরামর্শ দিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, নির্বাচন চলাকালীন প্রধানমন্ত্রী কখনো রাজ্যের কর্মচারীদের কোনো নির্দেশ দিতে পারেন। এতে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করা হয়।