অমিত শাহ সফরের আগে রাজ্যের সমস্ত সাংসদ-বিধায়কদের নিয়ে একটি জরুরি বৈঠক ডাকলেন মুখ্যমন্ত্রী

6
অমিত শাহ সফরের আগে রাজ্যের সমস্ত সাংসদ-বিধায়কদের নিয়ে একটি জরুরি বৈঠক ডাকলেন মুখ্যমন্ত্রী

একুশের নির্বাচন উপলক্ষে রাজ্যে ভোট প্রচারে আসছেন দিল্লির শীর্ষ নেতৃত্বরা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা দফায় দফায় রাজ্যে আসছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর বিগত দফার রাজ্য সফরে রাজ্য শাসকদলের একাধিক নেতা-নেত্রী, বিধায়ক, সাংসদ ঘাসফুল ত্যাগ করে পদ্মফুল আপন করেছেন। আগামী ৩০-৩১শে জানুয়ারি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফের বাংলায় আসবেন।

তার ঠিক একদিন আগেই আগামী ২৯শে জানুয়ারি তৃণমূল ভবনে সাংসদ-বিধায়কদের নিয়ে একটি জরুরি বৈঠকে বসতে চলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের বৈঠকের বিষয় কি, সে সম্পর্কে এখনও কিছু জানানো হয়নি। তবে মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে আয়োজিত এই বৈঠকে রাজ্যের সকল সাংসদ-বিধায়কের উপস্থিতি বাধ্যতামূলক বলে জানানো হয়েছে।

অমিত শাহের বাংলা সফরের ঠিক একদিন আগেই রাজ্য শাসকদলের এই জরুরি বৈঠক নিয়ে রাজনৈতিক মহলে বেশ তরজা চলছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা এই বৈঠককে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর বাংলা সফরের আগেই দলীয় নেতাকর্মীদের মনোভাব বুঝে নিতে চাইছেন তৃণমূল সুপ্রিমো, এমনটাই অনুমান বিশ্লেষকদের। কারণ তৃণমূল দলের অভ্যন্তরে অন্তত দশজন সাংসদ, বিধায়ক, নেতাকর্মীর দলত্যাগের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে পুরশুড়ায় আয়োজিত সভায় মুখ্যমন্ত্রী দলের “বেসুরো”দের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছিলেন, যারা দল ছেড়ে যেতে চান, তারা এখনই যেতে পারেন। ২৯শে জানুয়ারি কালীঘাটের তৃণমূল ভবনে আয়োজিত বৈঠকেও সেই একই বার্তা দেবেন মুখ্যমন্ত্রী, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।