বেডরুম একদেশে তো রান্নাঘর অন্য দেশে! জানুন এই গ্রামটি কোথায়

7
বেডরুম একদেশে তো রান্নাঘর অন্য দেশে! জানুন এই গ্রামটি কোথায়

আমাদের দেশের প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষের বাস গ্রামে। কিন্তু জানেন কি দুই দেশের সীমান্তে রয়েছে এমন একটি গ্রাম যেখানকার বহু মানুষের বাড়ি দুই দেশের মধ্যে। অর্থাৎ বাড়ির বেডরুম একদেশে হলে রান্নাঘর অন্য দেশে। কি দারুণ ব্যাপার ভাবুন তো! আর সেই কারণে এখানে মানুষরা ভিসা ছাড়াই দুই দেশেই অবাধে ঘোরাফেরা করতে পারে।

গ্রামটির নাম হল লংওয়া। নাগাল্যান্ডের সোম জেলার সবচেয়ে বড় গ্রামগুলির মধ্যে এটি একটি। ঘন জঙ্গলে ঘেরা ভারত এবং মায়ানমারের সীমান্তে অবস্থিত এই গ্রামটি ভারতের একেবারে শেষ গ্রাম। এখানকার পরিবেশ অত্যন্ত শান্ত প্রকৃতির এবং চারিদিকটা সবুজে ঘেরা।

খুবই হিংস্র প্রকৃতির কোনিয়াক আদিবাসীদের বাস এই গ্রামে। মায়ানমারের এই অঞ্চলে প্রায় ২১টি কোনিয়াক আদিবাসীদের গ্রাম রয়েছে। শুধু তাই নয়, মায়ানমার এবং অরুণাচল প্রদেশের ৭০ টির বেশি গ্রামে এদের আধিপত্য রয়েছে। আশেপাশের গ্রামগুলির সাথে জমি এবং ক্ষমতা দখলের জন্য প্রায়ই লড়াই হয় এদের।

এখানকার রাজার রয়েছে ৬০ জন স্ত্রী। গ্রামগুলিতে রয়েছে আফিমের ব্যাপক চাহিদা, যা মায়ানমার সীমান্ত দিয়ে পাচার করা হয়।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি এখানে রয়েছে শিলোই হ্রদ, ডোয়াং নদী, হংকং মার্কেট, নাগাল্যান্ড বিজ্ঞান কেন্দ্রসহ অনেক পর্যটন কেন্দ্র। সোম শহর থেকে মাত্র ৪২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই গ্রামটিতে গাড়ি করে খুব সহজেই পৌঁছে যেতে পারেন সবুজাভ স্নিগ্ধ প্রকৃতিকে উপভোগ করতে।