পুরুষের বউ পেটানো একেবারেই সঠিক কাজ! মত 30 শতাংশ মহিলার

18
পুরুষের বউ পেটানো একেবারেই সঠিক কাজ! মত 30 শতাংশ মহিলার

মহিলাদের উপর শারীরিক নির্যাতন, বধূ নির্যাতন নিয়ে কড়া আইন রয়েছে দেশে। অথচ এই দেশেরই 14 টি রাজ্যের অন্ততপক্ষে 30 শতাংশ মহিলা মনে করেন যে পুরুষের বউ পেটানো একেবারেই সঠিক কাজ! কেন্দ্রীয় সাম্প্রতিকতম একটি সমীক্ষায় এমন উদ্বেগজনক তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। দেখে কার্যত চক্ষুচড়কগাছ জাতীয় পারিবারিক স্বাস্থ্য সমীক্ষার অংশগ্রহণকারী গবেষকদের।

জাতীয় পারিবারিক স্বাস্থ্য সমীক্ষার ফলাফলে জানানো হয়েছে দেশের তিনটি রাজ্যের 75 শতাংশ বা তার বেশি মহিলা এবং পুরুষ মনে করেন যে স্বামীর হাতে স্ত্রী মার খাওয়াটা ঠিক! এর মধ্যে প্রথমেই রয়েছে তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ এবং কর্ণাটক। মনিপুর, কেরল, জম্মু-কাশ্মীর, মহারাষ্ট্র এমনকি পশ্চিমবঙ্গও শতাংশের বিচারে পিছিয়ে নেই এই তালিকায়। 42 শতাংশ মহিলাই মনে করছেন বউ পেটানোর মধ্যে ভুল কিছু নেই।

এই সমীক্ষায় প্রশ্ন রাখা হয়েছিল স্বামী যদি তার স্ত্রীকে আঘাত করেন বা মারধর করেন তাহলে তা কি যুক্তিসঙ্গত? 14 টি রাজ্যের 30 শতাংশ মহিলা জানালেন তারা এটা সমর্থন করেন। বউ পেটানো কেন ঠিক বলে মনে করছেন তার পরিপ্রেক্ষিতে 7 টি কারণ ঠিক মনে করছেন তারা। স্বামীর সঙ্গে তর্ক করা, স্বামীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে অসম্মতি, সংসার বা সন্তানের প্রতি অবহেলা, ভাল রান্না না করতে পারা, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে স্বামীকে সন্দেহ করা কিংবা শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের অশ্রদ্ধা করার পরিপ্রেক্ষিতে ‘স্বামীর শাসন’ ঠিক বলে মনে করছেন তারা।

এই তালিকায় সবথেকে শেষে রয়েছে হিমাচল প্রদেশ। সেই রাজ্যের মাত্র 14.2 শতাংশ পুরুষ মনে করেন যে এই কাজটা সঠিক। 14.8 শতাংশ মহিলা মনে করছেন কাজটি সঠিক। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে উদ্বিগ্ন মহিলাদের অধিকার নিয়ে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। তারা মনে করছেন পুরুষতান্ত্রিক মনোভাব এখনো গভীর প্রভাব ফেলে রেখেছে সমাজে। যেখানে মনে করা হয় পরিবার এবং স্বামীর সেবা করাটাই মহিলাদের প্রধান কাজ।