বর্তমানে ৪৫ বছরের উর্ধ্বের সকল নাগরিককেই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে! জানালো সেরাম অধিকর্তা

25
বর্তমানে ৪৫ বছরের উর্ধ্বের সকল নাগরিককেই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে! জানালো সেরাম অধিকর্তা

দেশজুড়ে করোনার সংক্রমণ যে হারে বাড়ছে তাতে উদ্বিগ্ন প্রশাসন। প্রশাসনের তরফ থেকে ইতি পূর্বে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য বহু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এরমধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হলো ১৮ বছর বয়সের ঊর্ধ্বদের টিকাকরণ। এই মর্মে রাজ্য সরকার এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে নির্দেশ পাঠানো হয়েছে। তবে চাহিদার তুলনায় ভ্যাকসিনের যোগান কম পড়ছে।

১লা মে থেকে দেশজুড়ে গণহারে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। তবে দেশের প্রায় সর্বত্রই টিকার আকাল দেখা দিয়েছে। চাহিদার তুলনায় পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন নেই হাসপাতালগুলির হাতে। এই পরিস্থিতিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলো পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। জুলাই মাসের আগে বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে ১৮ বছরের উর্ধ্বের নাগরিকদের জন্য ভ্যাকসিন সরবরাহ করা যাবে না।

এই মুহূর্তে দেশে যে ভ্যাকসিনের আকাল দেখা দিয়েছে তার পরিপ্রেক্ষিতেই এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সেরাম। আপাতত ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বের নাগরিকদের জন্য এই বেসরকারি হাসপাতালে ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে সংশ্লিষ্ট সংস্থা। দেশজুড়ে Covishield-এর জোগান দিতে হিমশিম খাচ্ছে সেরাম। এই মুহূর্তে ভ্যাকসিনের উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্য মাত্রা নিয়ে এগোচ্ছে ভারতীয় ঔষধ প্রস্তুতকারক সংস্থাটি।

সম্প্রতি এই মর্মে একটি ঘোষণা করেছেন সেরাম ইনস্টিটিউটের কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা। দেশের দৈনিক সংক্রমণের হার ৪ লক্ষের গণ্ডি পেরিয়ে গিয়েছে। এরমধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের সকলের জন্য ভ্যাকসিনের উদারীকরণ নীতি অনুযায়ী সকলকে ভ্যাকসিন প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে না। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভ্যাকসিনের আকাল দেখার দিচ্ছে। তাই আপাতত ৪৫ বছরের উর্ধ্বের সকল নাগরিককেই ভ্যাকসিন দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে সেরাম।