বছর যেতে না যেতেই শাশুড়ির নিন্দা শুরু করে দিলেন ক্যাটরিনা

7
বছর যেতে না যেতেই শাশুড়ির নিন্দা শুরু করে দিলেন ক্যাটরিনা

সাধারণত বহু কাল আগে থেকেই সংসারে শাশুড়ি বৌমার ঝামেলা সবাই শুনে আসছেন, বর্তমান সময়ও সেটা থেকে কিন্তু ছাড় পায়নি। ঘরেই এরকম সমস্যা আজও বর্তমান। সেটা সাধারন পরিবারে হোক কিংবা যেকোনো তারকা পরিবারে এই সমস্যাটা রয়েই গেছে। বলিউডের বচ্চন পরিবারের ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের সঙ্গে জয়া ভাদুড়ীর মধ্যে মনোমালিন্য হামেশাই লেগে থাকে।

এবার শোনা গেল বলিউডের অভিনেত্রী ক্যাটরিনা ক্যাফের সেই সমস্যা। এই বিষয়ে সম্প্রতি অভিনেত্রী নিজেই মুখ খুলেছেন। কত বছর সাত পাকে বাঁধা পড়েছে ক্যাটরিনা কাইফ এবং ভিকি কৌশল। রূপকথার মতোই ছিল তাদের বিয়ের প্রস্তুতিটা। রূপকথার মত বিয়ে হয়ে থাকলেও কি রূপকথার জগতের মতোই কি সংসার তিনি পেয়েছেন?

বছর যেতে না যেতেই শাশুড়ির নিন্দা শুরু করে দিলেন অভিনেত্রী। শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে অভিনেত্রী যেটি প্রধান সমস্যা হয়েছে সেটি হয়েছে খাওয়া দাওয়ার ক্ষেত্রে। পাঞ্জাবি পরিবারের ছেলে ভিকি। পাঞ্জাবি পরিবারে সবসময় খাওয়া-দাওয়া একটু জোরদারী হয়। তেল মসলা দেওয়া খাবার এই ধরনের খাবার খেতে বেশ কষ্ট হচ্ছে ক্যাটরিনার। তবে এখন প্রধান সমস্যা হল ব্রেকফাস্ট বিষয়ে।

সম্প্রতি কোপিল শর্মা শো তে উপস্থিত হয়েছিলেন ক্যাটরিনা, যেখানেই তিনি তার দুঃখের কথা জানালেন। তিনি জানান পাঞ্জাবীরা সকালের ব্রেকফাস্টে পরোটা খান। ভিকির মাও পরিবারের সকলের জন্য সকালবেলায় গিয়ে ভাজা পরোটা তৈরি করেন এবং ছেলে বৌমাকে সেই পরোটাই খেতে দেন, কিন্তু ঘুম থেকে উঠে পরোটার মতো ভারি খাবার খেতে রাজি নন ক্যাটরিনা।

বিয়ের প্রথম থেকেই এই খাবার দাবার বিষয়ের আপত্তি জানিয়েছে অভিনেত্রী, কিন্তু ভিকির মাও একজন নাছোড়বান্দা। তিনি বৌমাকে সেই পরোটাই জোর করে খাওয়ান। এই নিয়ে বাড়িতে মন কষাকষির সৃষ্টি হয়। কিন্তু ভিকির মা ক্যাটরিনাকে জানান যে তিনি পাঞ্জাবি পরিবারের বৌমা সুতরাং তাকে এসব খাবারদাবার খেতেই হবে, কিন্তু অবশেষে এই যুদ্ধই কিন্তু যেতেন ভিকির মা।

শাশুড়ির জোরাজোরিতে প্রথমদিকে পরোটা খেতেন কিন্তু তিনি এই ধরনের জড়াজড়ি করে খাবার খাওয়ানো একদমই পছন্দ করেন না তাই সংসারে শাশুড়ির সঙ্গে এই বিষয়েই তার সমস্যা লেগেই রয়েছে কিন্তু অন্য সব বিষয়ে শাশুড়ির সঙ্গে বন্ডিং তার বেশ ভালো বলেই জানিয়েছেন ক্যাটরিনা।