গত মে মাসেই নাকি দেশে করোনার আক্রান্ত ছিল ৬৪ লক্ষের মতো, চাঞ্চল্যকর তথ্য সেরো সার্ভের রিপোর্টে

5
গত মে মাসেই নাকি দেশে করোনার আক্রান্ত ছিল ৬৪ লক্ষের মতো, চাঞ্চল্যকর তথ্য সেরো সার্ভের রিপোর্টে

এবার এই সময়ে যখন দেশের করোনা সংক্রমণ দিনে প্রায় ১ লক্ষের কাছাকাছি চলে গেছে, সেখানে দাঁড়িয়ে একটি রিপোর্ট পেশ করেছে। যেখানে স্পষ্ট তারা জানিয়েছেন, গত মে মাসেই নাকি দেশে করোনার আক্রান্ত ছিল ৬৪ লক্ষের মতো। আজ্ঞে হ্যা, এটি তাদের সেরো সার্ভেতে ধরা পড়েছে। তারা বলেছে সব থেকে গ্রামাঞ্চলে এই করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পেয়েছিল আর সেটা যুবসমাজের ওপরেই সব থেকে বেশী আঘাত হেনে ছিল।

আই সি এম আরের এই সেরো সার্ভের রিপোর্ট আসার কথা আছিল ২ মাস আগেই, কিন্তু এবার সেটা গত বৃহস্পতিবার প্রকাশ করা হয়েছে। আর সেটা প্রকাশ করার পরেই দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন চাঞ্চল্যকর তথ্য। আসলে গত ১১ মে থেকে ৪ জুন পর্যন্ত এই সমীক্ষা করা হয়। আর সেখানে মোট ২৮ হাজার মানুষের ওপরে সমীক্ষা করা হয়। আর সেখান থেকেই জানা যায় মে মাসেই দেশের মধ্যে প্রায় ৬৪ লক্ষের মতো মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল, যা কিনা দেশের মোট জনসংখ্যার ০.৭৩%।

এদিকে এই রিপোর্টে এর সাথে ধরা পড়েছে সেই সব তথ্যও যা অনেকটাই অবাক করা। সেটা হল এই সার্স কভ-২ এ সবচেয়ে বেশী আক্রান্ত হয়েছিল ১৮-৪৫ বছরের মধ্যে থাকা মানুষেরা। এই রিপোর্টে এটাও উঠে এসেছে যাদের নমুনা নেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে ৪৩.৩% মানুষের দেহেই মিলেছে করোনার এন্টিবডি। বয়সের হিসেবে ভাগ করলে দেখা যাবে ৬০ বছরের ঊর্ধে থাকা মানুষের দেহে এন্টিবডি পাওয়া যায় ১৭.২%, এদিকে ৪৬-৬০ বছরের মানুষের দেহে এন্টিবডির পরিমাণ ৩৯.৫%। কিন্তু রিপোর্টের কনক্লুশনে এসে জানা গেছে মে মাসেই গ্রামীণ প্রাপ্ত বয়স্কদের মধ্যে সেরোপজিটিভ প্রায় ৭০% এর মতো। যা কিনা প্রমাণ করছে গ্রামের দিকেই এই করোনার সংক্রমণ সব থেকে বেশী ছিল মে মাসে। এদিকে শহরে ছিল ১৫.৯% ও অঞ্চলে ছিল ১৪.৬%।