লোডশেডিংয়ের ফলে হুলুস্থুল কাণ্ড বেঁধে গেল বিয়ের আসরে

9
লোডশেডিংয়ের ফলে হুলুস্থুল কাণ্ড বেঁধে গেল বিয়ের আসরে

লোডশেডিংয়ের ফলে বেঁধে গেল হুলুস্থুল কাণ্ড। বিয়ের আসরে ঘটল এমন এক ঘটনা যার কারণে বিয়ে বাড়ির গোটা আনন্দই হয়ে গেল বাঞ্চাল। বড়সড় ঝামেলাও বেঁধে যেত পারতো, তবে তা এড়ানো গেছে।

মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনীতে রবিবার রমেশলালের দুই কন্যার বিয়ে হয় একই আসরে। স্বভাবতই বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আত্মীয়স্বজন থেকে পাড়া-প্রতিবেশী সকলে। খাওয়া দাওয়া থেকে শুরু করে বাকি সবের এলাহী আয়োজন করেছিলেন রমেশলাল। কিন্তু বিয়ের মাঝে আচমকা বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় ঘটে যায় এক অদ্ভুত কাণ্ড। রমেশলালের দুই কন্যা নিকিতা ও করিশ্মার বিয়ে হচ্ছিল দু’টি আলাদা পরিবারের যুবক দানগোওরা ভোলা ও গণেশের সঙ্গে। দুই কনের পরনে ছিল একই ধরনের পোশাক, সাজগাজও ছিল হুবহু একই রকম। বিয়ের রীতি-রেওয়াজ শুরু হওয়ার মুহুর্তে বিয়ের আসরে হঠাৎ লোডশেডিং হয়। তবে ওই অন্ধকারেই এক জোড়া কনে ও বরকে আনা হয়েছিল বিয়ের মণ্ডপে। মালা বদল-সহ অন্যান্য নিয়মও পালিত হয়। এমনকী নিয়ম মেনে সাত পাকে বাঁধাও পড়েন জোড়া যুগল। তবে যাঁর গলায় যাঁর মালা দেওয়ার কথা তিনি তা দেননি।

ফলে অন্ধকারে ভুল বরের সঙ্গে বিয়ে হয়ে যায় ভুল কনের। তবে সেই ঘটনা তখন টের পাওয়া যায় নি। অনেক পরে যখন রীতি রেওয়াজ শেষে বর-বধূ ঘরে ফেরে, তখন ঘোমটা খুলতেই চমকে যান বর-বধূ উভয়েই। এরপর তিন বাড়িতেই বড়সড় গোলযোগ বাঁধে। তবে দুই জোড়া যুগলই ব্যাপারটা সামলে নেন এবং জানান, এই বিয়ে নাকচ। নিয়ম মেনে ফের বিয়ে করবেন তাঁরা। তাহলেই সমস্যার সমাধান হবে। তবে এবার আর মালা বদলে কোনো গন্ডগোল হবে না বলে আশ্বাস দেন তাঁরা।