অভিষেক নিজেই বিনয় মিশ্রকে তার বাড়িতে লুকিয়ে রেখেছেন, এমনটাই দাবী করলেন অর্জুন সিং

6
অভিষেক নিজেই বিনয় মিশ্রকে তার বাড়িতে লুকিয়ে রেখেছেন, এমনটাই দাবী করলেন অর্জুন সিং

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে বঙ্গ বিজেপি শিবির রাজ্য শাসকদলের বিরুদ্ধে সমালোচনা করতে গিয়ে তৃণমূলের যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইতিপূর্বে নানাভাবে কটাক্ষ করেছে। এবার গরু পাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত অভিযুক্তদের সাহায্য করার মতো গুরুতর অভিযোগও উঠলো তার বিরুদ্ধে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুললেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। তার দাবি অনুসারে, গরু পাচার কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অন্যতম অভিযুক্ত বিনয় মিশ্রকে আশ্রয় দিয়ে লুকিয়ে রেখেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার হাওড়ার বালিতে গুলিবিদ্ধ বিজেপি নেতাকে দেখতে হাওড়ার জৈন হাসপাতালে গিয়েছিলেন অর্জুন সিং। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, রাজ্য পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশ গরু পাচার চক্রের পান্ডা বিনয় মিশ্রকে নিরাপত্তা দিচ্ছে। এমনকি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বিনয় মিশ্রকে তার বাড়িতেই লুকিয়ে রেখেছেন বলে কটাক্ষ করেন অর্জুন সিং। এখানেই শেষ নয়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে টাকা লেনদেন করার অভিযোগও তুলেছেন বিজেপি সাংসদ।

এ প্রসঙ্গে অর্জুন সিংয়ের মন্তব্য, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুটো আইডেন্টিটি রয়েছে। একটা দেশের, অপরটা থাইল্যান্ডের। এই দুটি আইডেন্টিটি ব্যবহার করে বেআইনিভাবে টাকা লেনদেন করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, এমনটাই দাবি অর্জুন সিংয়ের। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বাংলায় কয়লা পাচার চক্রের মূল অভিযুক্ত অনুপ মাজী এবং গরু পাচার চক্রের মূল পান্ডা এনামুল হকের লিংক ম্যান হিসেবে বিনয় মিশ্রের নাম পেয়েছে সিবিআই।

এখন তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্রকে জেরা করেই এই মামলার গভীরে যেতে চাইছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তবে বিনয় মিশ্রকে হাতে পাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। বিনয়ের ভাই বিকাশ মিশ্রকে জেরা করেছে সিবিআই। বিনয় মিশ্রকে এর আগে সিবিআইয়ের কাছে উপস্থিত হওয়ার জন্য তিনবার নোটিশ পাঠানো হয়েছে। কিন্তু সূত্রের খবর, গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসেই নাকি দেশ ছেড়ে পালিয়েছে বিনয় মিশ্র। এতদিনে আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে।