আপনি কি ঋণে জরাজীর্ণ? দেখে নিন বাস্তু মতে ঋণমুক্ত হওয়ার কয়েকটি টিপস

73
আপনি কি ঋণে জরাজীর্ণ? দেখে নিন বাস্তু মতে ঋণমুক্ত হওয়ার কয়েকটি টিপস

আমরা হয়তো সকলেই জানি বাস্তুদোষ থাকলে সব সময় জীবনে কোন না কোন ঝামেলা সমস্যা লেগেই থাকে। এছাড়াও পরিবারের সদস্যরা রোগ ভোগান্তিতে ভুগে থাকেন। তাই বাস্তুদোষ সম্পর্কে সজাগ থাকা উচিত এবং যদি বাড়িতে বাস্তুদোষ থেকে থাকে তাহলে তা দ্রুত নিরাময় করা উচিত। অনেকের মধ্যেই দেখা যায় অনেকে কারণবশত অন্যের থেকে টাকা ধার করতে হয়। পরে সেই টাকা ঋণ শোধ করতে পারেনা, এর পেছনে কোথাও না কোথাও বাস্তুদোষ লুকিয়ে আছে।

কয়েকটি উপায় এর মাধ্যমে আপনি আপনার বাড়ি থেকে বাস্তুদোষ দূর করতে পারবেন এবং ঋণমুক্ত হতে পারবেন। প্রথম উপায়টি হলো বাড়িতে ঈশান কোণে তুলসী গাছ রাখা উচিত। এর ফলে বাড়ি থেকে নেগেটিভিটি দূর হয়। বাড়িতে অর্থের আগমন ঘটে এবং অর্থ উপার্জনের কোনো সমস্যা দেখা যায়না।

দ্বিতীয় উপায়টি হল কাউকে টাকা শোধ দেওয়ার জন্য সপ্তাহের মঙ্গলবার দিনটিকে বেছে নেওয়া উচিত। কারন মঙ্গলবার কথাটির মধ্যেই মঙ্গল কথা রয়েছে। তাই সেই দিনে কাউকে টাকা শোধ করলে সেই টাকা থেকে খুব তাড়াতাড়ি ঋণমুক্ত হওয়া যায়। তবে একটা কথা মাথায় রাখা উচিত মঙ্গলবার দিন কখনোই কাউকে টাকা ধার দেওয়া উচিত নয়।মনে করা হয় মঙ্গলবার দিন কাউকে টাকা ধার দেওয়া হলে সেটা খুব তাড়াতাড়ি পাওয়া যায়না।

তৃতীয় উপায়টি হল বাড়িতে ৯টি পাইপের উইন্ডচাইম দরজার রাখা উচিত। ফলে ওই উইন্ডচাইমের আওয়াজ এর ফলে বাড়ির নেগেটিভ শক্তি দূর হয় এবং বাস্তু দোষ কেটে যায়। চতুর্থ উপায়টি হল বাড়ি ও অফিসে সর্বদাই জলের পাএ উত্তর দিকে রাখা উচিত। বাড়ি ও অফিসে জলের পাত্র উত্তর দিকে না থাকে বা অন্য কোনো দিকে থাকলে সেক্ষেত্রে বাস্তুদোষ ঘটতে পারে। এরফলে কখনো ঋনমুক্ত হওয়া যাবেনা এমনটাই মনে করা হয়। পঞ্চম উপায়টি হলো বাড়ি ও অফিসের অর্থের জায়গায় অর্থাৎ লকারে লাফিং বুদ্ধা ফটো বা মূর্তি রাখা উচিত। পারলে নিজের পার্সে লাফিং বুদ্ধার ছবি রাখা উচিত। তাহলে অর্থের সমস্যা কোনদিনও পরতে হবেনা এবং কারোর কাছে ধার নিতে হবেনা। সব থেকে বড় কথা ঋণমুক্ত হওয়ার ব্যাপারটা আর থাকবেনা।