কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইতের কারণে ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়লো আপেল চাষীরা

10
কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইতের কারণে ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়লো আপেল চাষীরা

কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইতের কারণে সোমবার ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়তে হলো আপেল চাষীদের। সোমবার আচমকাই হিমাচল প্রদেশের সোলনের কৃষি মণ্ডিতে হাজির হোন রাকেশ টিকাইত। তার উপস্থিতিতে বেশ কয়েক ঘণ্টা কৃষি মন্ডী বন্ধ হয়ে যায়। এতে কার্যত বেশকিছু আপেলের পেটি বিক্রি করতে পারেননি আপেল চাষিরা। কৃষকদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে প্রায় ৫ হাজার পেটি আপেল বিক্রি করা সম্ভব হয়নি। যে কারণে প্রচুর ক্ষয় ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে তাদের।

এদিন এই ঘটনার কারণে প্রায় সাত লক্ষ টাকা ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে কৃষকদের। শনিবার সোলনের মণ্ডিতে প্রায় ২০ হাজার আপেলের পেটি বিক্রি করার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে জানা যাচ্ছে। সকাল সাড়ে আটটা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত মণ্ডিতে ব্যবসায়ীরা আপেল কেনা-বেচা চলে। কিন্তু এদিন আচমকাই রাকেশ টিকাইত সকাল ১০টা নাগাদ ওই বাজারে পৌঁছে যান। তার সমর্থকরা ওই বাজারে গিয়ে স্লোগান দিতে শুরু করেন। যার ফলে বিক্রি-বাট্টা বন্ধ হয়ে যায়।

অন্যান্য ব্যবসায়ী এবং আপেল চাষিরা অবশ্য এই কার্যকলাপের বিরোধিতা করেছিলেন। ৩০ মিনিটের উপর বাজার বন্ধ ছিল। যে কারণে ৫ হাজার পেটি আপেল বেচাকেনা করতে পারেননি কৃষকেরা। টিকাইত সমর্থকদের হাঙ্গামার কারণে বাজার ছেড়ে চলে যান বহু আপেল ব্যবসায়ী। এরপরে আবার সোলন মণ্ডির এক আড়ৎদার টিকাইতের বিরুদ্ধে সোলন থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি অভিযোগে জানিয়েছেন রাকেশ টিকাইত তার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন।

হিমাচল প্রদেশের নগরোন্নয়ন মন্ত্রী সুরেশ ভরদ্বাজ এই কাণ্ডে ওই কৃষক নেতার চরম নিন্দা করেছেন। তিনি বলেন নিজেকে কৃষক নেতা বলে পরিচয় দিয়ে ওই ব্যক্তি আসলে সাধারণ মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন। তার কারণে কৃষকদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। এই ঘটনা নিন্দনীয়।