শুভেন্দুর ছাড়া তিনটি পদের দায়িত্ব নিজের কাঁধেই তুলে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী

7
শুভেন্দুর ছাড়া তিনটি পদের দায়িত্ব নিজের কাঁধেই তুলে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী

একদিন আগেই রাজ্যের মন্ত্রী সভা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তার উপরে রাজ্যের সেচ, পরিবহণ এবং জলসম্পদের মতো গুরুদায়িত্ব ভার অর্পিত ছিল। বিধানসভা নির্বাচনের আগেই শুভেন্দু অধিকারীর এহেন অবস্থানে স্বভাবতই রাজ্যের উপর চাপ কিছুটা হলেও বেড়েছে। বিশেষত, শুভেন্দুর তিনটি পদের দায়িত্বভার কেমন ভাবে বন্টন করা হবে, সেই নিয়ে নবান্নে জোর তরজা শুরু হয়। শেষমেষ সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নিজেই ওই তিন পদের দায়িত্বভার নিজের কাঁধে তুলে নিলেন।

শুভেন্দু অধিকারী মন্ত্রিসভা ছাড়ার পর তার দায়িত্বে থাকা তিনটি গুরুত্বপূর্ণ পদের ভার প্রাথমিকভাবে দলীয় নেতৃত্বদের মধ্যেই বন্টন করে দেওয়ার ভাবনা চিন্তা চলছিল নবান্নে। এক্ষেত্রে ফিরহাদ হাকিম বা অরূপ বিশ্বাসকে পরিবহন দপ্তরের ভার দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে সেচ দপ্তরের দায়িত্ব অর্পণের কথা ভাবা হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে সেই সিদ্ধান্তে বদল আনা হয়। কারণ পুর, নগরোয়ন্নয়ন দপ্তরের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন ফিরহাদ হাকিম।

অরূপ বিশ্বাসের উপর এমনিতেই ক্রীড়া এবং যুব কল্যাণ দপ্তরের ভার রয়েছে। পাশাপাশি তৃণমূলের সংগঠনেও তারা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সামলান। এমতাবস্থায় তাদের উপর আর নতুন করে দায়িত্ব দিতে রাজি নয় নবান্ন। তাই শেষমেষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই ওই তিন দপ্তরের দায়িত্ব নিজ স্কন্ধে তুলে নিলেন। উল্লেখ্য, রাজ্যের মন্ত্রী সভায় বেশ কয়েকটি পদের দায়িত্বে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার শেষ পরিবহন এবং জল সম্পদের মতো আরও তিনটি গুরুত্বপূর্ণ পদ সামলাতে চলেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সকালে শুভেন্দু অধিকারী নবান্নে তার ইস্তফাপত্র পেশ করার পরেই মুখ্যমন্ত্রী দলের শীর্ষ নেতৃত্ব দের নিয়ে তার নিজের বাড়িতে একটি জরুরী বৈঠকের আয়োজন করেন। এ দিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, তৃণমূল সভাপতি সুব্রত বক্সি, ফিরহাদ হাকিম, অরূপ বিশ্বাস, যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। দুই ঘণ্টার বৈঠকের পর অবশেষে শুভেন্দু অধিকারীর উপর ন্যস্ত তিনটি গুরুত্বপূর্ণ পদ ভার মুখ্যমন্ত্রী নিজের কাছেই রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।