করোনার মধ্যেই আরও এক মহামারী গ্রাস করছে ভারতকে

24
করোনার মধ্যেই আরও এক মহামারী গ্রাস করছে ভারতকে

গত বছর থেকে যে বিষের দাবদাহে সারাবিশ্ব বিষাক্ত হয়ে উঠেছে, একের পর এক ভয়ানক খবর প্রকাশিত হচ্ছে, আবারও সেরকমই আর এক মহামারী কথা ঘোষণা করেছেন রাজস্থান সরকার। কথায় বলে একে রামে রক্ষা নেই তার ওপরে সুগ্রীব দোসর।

সম্প্রতি মানুষের চারিদিকে যেমন করোনাকে নিয়ে হাহাকার, ত্রাহি ত্রাহি রব উঠেছে এরই মাঝে নতুন করে ভয় জায়গাতে এসে উপস্থিত আরও এক মারণব্যাধি কালো ফাঙ্গাস। যা ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে মানুষের মধ্যে। এটি একটি ফাংগাল ইনফেকশন, যেটি একদল ছত্রাকের জন্য হচ্ছে যা সাইনাস বা ফুসফুসকে সংক্রমিত করছে।

করোনা থেকে সেরে ওঠা রোগী বা করণা সংক্রমিত রোগের ধরনের ফাঙ্গাসের দ্বারা প্রভাবিত হবার সম্ভাবনা আছে, যার ফলে অতি সতর্কতার সাহায্যে থাকতে হবে রোগী কে। এমনকি এই রোগের সংক্রমণ এ মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে রোগীর। এ সম্পর্কে দিল্লির এইমসের নির্দেশক ডক্টর রনজয় গুলেরিয়া জানিয়েছেন যে, সাধারণত স্টেরয়েড ওষুধ পাঁচ থেকে দশ দিন চলতে পারে, এর বেশি চলে এই ছত্রাকের প্রভাবে প্রভাবিত হতে পারে। এমনকি স্টেরয়েড নেয়া রোগীর ওপর বিশেষ নজর রাখাও জরুরী। এই সংঘাতের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া ক্ষেত্রে একমাত্র পথ হচ্ছে সতর্ক দেখভাল, অত্যন্ত সতর্কতার বজায় রাখতে হবে।

এই ফাংগাসের কিছু লক্ষণ প্রকাশ করা হয়েছে ইতিমধ্যেই, চোখে ব্যথা, চোখে জ্বালা, মাথাব্যথা, জ্বর সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট, বমিভাব, অস্পষ্ট দৃষ্টি এমনকি মানসিক অবস্থার পরিবর্তন ও এই রোগের লক্ষণ হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। একেই আমাদের দেশে করোনা দ্বিতীয় ঢেউকে সামলাতেই অস্থির কান্ড, তার ওপরেই ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের প্রকোপ। মহারাষ্ট্র গুজরাট দিল্লি কর্ণাটক মহারাষ্ট্র গুজরাট এগুলো ছাড়াও বেশ আরো কয়েকটি রাজ্য এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের প্রকোপ বেড়েই চলেছে।