মাত্র ১০ মাস বয়সী এক পোষ্যের উপর নৃশংশ অত্যাচার, ভিডিও ভাইরাল ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন পশুপ্রেমীরা

10
মাত্র ১০ মাস বয়সী এক পোষ্যের উপর নৃশংশ অত্যাচার, ভিডিও ভাইরাল ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন পশুপ্রেমীরা

নৃশংশতার চরম নিদর্শন মিললো সোশ্যাল মিডিয়ায়। মাত্র ১০ মাস বয়সী এক পোষ্যের উপর ভয়াবহ অত্যাচার চালালো এক যুবক। ছোট্ট শিশু ল্যাব্রাডরটির উপর নৃশংস অত্যাচারের সাক্ষী থাকলো নেট দুনিয়া। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি অসহায় পোষ্যটির শরীরে বেল্ট দিয়ে একের পর এক আঘাত হেনে চলেছে। দেওয়ালে তার মাথা ঠুকে দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, তাকে বারবার মাটিতে আছড়ে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। যন্ত্রণায় চিৎকার করছে সে, তবুও নিস্তার নেই।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার। জানা গেল, এই নৃশংস ঘটনাটি নয়ডায় ঘটেছে। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি একজন আইটি কর্মী। ওই ব্যক্তি যেভাবে কুকুরটির উপর অত্যাচার চালিয়েছে তাতে কুকুরটি বেশ আহত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, ওই কুকুরছানাটির পর যখন অত্যাচার চালানো হচ্ছিল, তখন ঐ আবাসনেরই এক ব্যক্তি ছানাটির চিৎকার শুনে ছুটে আসেন।

তিনি দেখেন ১০ মাস বয়সি এক কুকুর ছানাকে ব্যাপক মারধর করা হচ্ছে। তাকে বেল্টের বাড়ি মারা হচ্ছে। দেওয়ালে মাথা ঠুকে দেওয়া হচ্ছে। সে ব্যাথায় চিৎকার করছে বলে তাকে বারবার মাটিতে আছড়ে ফেলে দিচ্ছে ওই আইটি কর্মী। ঘটনাটি দেখে সঙ্গে সঙ্গে তা ক্যামেরাবন্দি করে ফেলেন ওই ব্যক্তি। এরপর সরাসরি তা বিজেপি নেত্রী তথা পশুপ্রেমী মানেকা গান্ধীর দপ্তরে পাঠিয়ে দেন তিনি।

ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই পশুপ্রেমী সংগঠনগুলি একযোগে ওই অত্যাচারীর বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হয়। অভিযুক্তের নাম রিশভ মেহরা। পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফ থেকে তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২৮ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি অত্যাচারিত ওই কুকুর ছানাটিকেও উদ্ধার করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনা দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন পশুপ্রেমীরা।