দক্ষিণী সিনেমা নিয়ে মুখ খুললেন বলিউডের অন্যতম প্রবীন অভিনেতা অনিল কাপুর

6
দক্ষিণী সিনেমা নিয়ে মুখ খুললেন বলিউডের অন্যতম প্রবীন অভিনেতা অনিল কাপুর

বর্তমান পরিস্থিতিতে একের পর এক দক্ষিণী সুপারহিট ছবির সামনে পড়ে বলিউড একেবারে ধূলিস্যাৎ হয়ে যাচ্ছে। তাই অনেকেই এই বিষয়ে ভাবছেন, তাহলে কি দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির কাছে বলিউড হেরে যাচ্ছে! নানা আলোচনার পর এবার এই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন বলিউডের অন্যতম প্রবীন অভিনেতা অনিল কাপুর।

একের পর এক অসংখ্য হিট ছবি একসময় দর্শকদের উপহার দিয়েছেন অনিল কাপুর। সম্প্রতি ‘KGF Part 2’ ছবির প্রচারে মঞ্চে উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছিল এই অভিনেতাকে। সেখানে এক ব্যক্তির প্রশ্নের মুখে পড়েন অনিল কাপুর। ব্যক্তিটি বলেন, “আজকাল বক্স অফিসে দক্ষিণী সিনেমা রই রাজ। তবে কি বলিউড থেকে বেশ আলাদা রকম চিন্তা ভাবনায় তৈরী হচ্ছে ছবিগুলো? বলিউডকে প্রতিযোগিতায় নামাতে পারে এই ছবিগুলি? আপনার কি মনে হয়?”

অনিল কাপুর প্রশ্নের উত্তরে বলেন, “আজ বলে নয়, দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি সবসময় ভালো ভালো ছবি বানিয়েছে। আমি আমার হুঁশ হওয়া থেকে দেখে আসছি। দর্শক সাউথ ছবি দেখতে বরাবরই বেশ পছন্দ করেন। তা রাম আর শ্যাম হোক, বা ‘তুজে কে লিয়ে’ হোক। বাবু সাহেব পরিচালিত ‘তুজে কে লিয়ে’ দেখেছেন? ওটা আমার কাছে খুবই অনুপ্রেরণাদায়ক ছিল।”

“আমি নিজেই আমার কেরিয়ার শুরু করেছিলাম দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির হাত ধরে। আমার প্রথম সিনেমা একটি তেলেগু সিনেমা, নাম ‘As a Leading Man’। বাবু সাহেবের সাথে এই ছবিতে কাজ করে করেছি। এখান থেকেই শিখেছি ডিসিপ্লিন, ডেডিকেশন এবং প্রফেশনাল শব্দ গুলোর আসল মানে। এরপর মনি রত্নমের পরিচালনায় একটি কানাডা ছবিতেও অভিনয় করেছিলাম। এছাড়াও ‘রাখবালা’, ‘ইনসাফ কি আওয়াজ’ ইত্যাদি অনেক অ্যাকশন ফিল্মও করেছি। সতীশ জি-র পরিচালনায় দুটো সুপারহিট ছবি ‘হাম আপকে দিল রাহেতে হে’, ‘হামারা দিল আপকে পাশ হে’ তে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছিলাম।”

তিনি আরও বলেন, “দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ডেডিকেশন ই আলাদা। সবসময় দক্ষিণী ছবি ভালো ছিল, ভালো চলছে এবং ভবিষ্যতে ও ভালো ভালো আসবে। মহান পরিচালকদের সাথে কাজ করতে গিয়ে তাদের নানা কথা বারবার আমাকে মনে করিয়ে দেয়। তাই ‘KGF 2’ এর সাফল্য নিয়ে আমি এতটুকু অবাক হইনি, কারণ এটা হওয়ারই ছিল। ভবিষ্যতেও আরও অনেক এরকম ছবি আসবে।”