সবচেয়ে বড়ো দুধের দাঁত নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়লো এক আট বছরের বালক

6
সবচেয়ে বড়ো দুধের দাঁত নিয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়লো এক আট বছরের বালক

আমাদের জীবনের দাঁত একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। ছোটবেলায় যে দুধের দাঁত আমাদের থাকে তা একসময় পড়ে যায়। তারপর যে দাঁত জন্মায় তা চিরকাল আমাদের সঙ্গী হয়ে থাকে। তবে এ তো খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। এর জন্য কি কখনো হয়ে যেতে পারে বিশ্ব রেকর্ড। কখনই নয়। কিন্তু সত্যিই এমন একটি ঘটনা ঘটে গেছে পৃথিবীতে। রেকর্ডের তালিকায় উঠেছে একটি দাতের নাম।

সম্প্রতি একটি আট বছরের খোঁজে বালক নিজের বড় দাঁত নিয়ে বিশ্ব রেকর্ডে নাম তুলে ফেলল। শুধু তাই নয়, গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়তে চলেছে তার। ছেলেটির নাম বুলটন। কানাডার বাসিন্দা এই ছেলে। সাধারণত যে ঘটনাটি অন্য শিশুদের ক্ষেত্রে হয় অর্থাৎ দুধের দাঁত পড়ে গিয়ে নতুন দাঁতের জন্ম হয়, কিন্তু বুল্টন এর ক্ষেত্রে ব্যাপারটা হয়েছে একেবারেই আলাদা।

দুধের দাঁত পড়ে যাওয়ার পর যে দাগ জন্মায় তার দৈর্ঘ্য তাকে কুড়ি মিলিমিটার। সেখানে আট বছর বয়সে এই ছেলেটির দাতের দৈর্ঘ্য হয়ে গেছে ২.৬ সেন্টিমিটার, আর ঠিক এই কারণেই তার নাম উঠে গেছে বিস্ময়কর এই তালিকায়।

২০০৯ সালে কানাডার ডেন্টাল ডাক্তার ক্রিস ম্যাক অর্থের কাছে আনা হয়েছিল এই ছেলেটিকে। তখন তার দুধের দাঁত তুলতে গিয়ে যে ঘটনাটি সামনে এলো সেটা দেখে ডাক্তারের চোখ চড়কগাছ হয়ে গেছে। এত বড় দুধের দাঁত এর আগে কখনো কেউ দেখেনি। দাত টি নিজের কাছে যত্ন করে রেখে দেন চিকিৎসক।

এর কিছুদিন পরে বিষয়টা নিয়ে আলোচনা করেন চিকিৎসক এবং ছেলের পরিবারের লোকেরা। সকলে মিলে বিশ্ব রেকর্ডের নাম তোলার জন্য চিন্তা ভাবনা করতে থাকেন। এর পরেই যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় কাজ সেরে ফেলা হয়। জানতে পারা গেছে যে, এখনো পর্যন্ত পৃথিবীর সবথেকে বড় দুধের দাঁতের রেকর্ড করে ফেলেছে বুলটান। এই রেকর্ডটি আগে ছিল ওহাইয়োর কার্টিস বাড্ডি নামের এক ছেলের। তার দন্তের দৈর্ঘ্য ছিল ২.৪ সেন্টিমিটার। তার থেকেও দুই সেন্টিমিটার এগিয়ে রয়েছে বুল্টন এবং তার দাঁত।