দাম্পত্য জীবনে সুখ না থাকলেও ডিভোর্সের সংখ্যা খুবই কম ভারতে

5
দাম্পত্য জীবনে সুখ না থাকলেও ডিভোর্সের সংখ্যা খুবই কম ভারতে

ভারতে বিবাহ রীতি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হয়। ভারতীয়দের কাছে বিবাহ হল সারা জীবন স্বামী-স্ত্রীর ঐক্যবদ্ধ থাকার সম্পর্ক। জীবনের সুখ-দুঃখ, হারজিত সমস্ত কিছু ভাগ করে নেওয়ার সম্পর্ক হল বিবাহ। ভারতীয় শাস্ত্র মতে বিবাহকে সাত জন্মের সম্পর্কও বলা হয়।

সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে, ভারতে ডিভোর্সের সংখ্যা খুবই কম কিন্তু ভারতে এমন কম দম্পতি আছে যারা প্রকৃতপক্ষে সুখী। সমীক্ষাটি চালানো হয়েছিল 1000 জনের মধ্যে এবং তার মধ্যে মোট 13 জন এমন দম্পতির রয়েছে যারা নিজেদের বিবাহ ভেঙে দিয়েছে। অর্থাৎ স্বামী-স্ত্রী একে অপরকে ডিভোর্স দিয়েছে। সমীক্ষার ফলাফল বলা যেতেই পারে ভারতে ডিভোর্সেরর সংখ্যা খুবই কম।

কিন্তু সমীক্ষায় এমন তথ্য উঠে এসেছে যে, ভারতে ডিভোর্সের সংখ্যা কম থাকলেও। এমন খুব কম স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক রয়েছে যাদের মধ্যে সুখী দাম্পত্য জীবন রয়েছে। বেশিরভাগ বিবাহিত সম্পর্ক টিকে রয়েছে কোনো না কোনো কারণের জন্য। সেই কারণ গুলির মধ্যে হয়ত, কারোর সন্তানের কথা ভেবে সম্পর্ক টিকে রয়েছে। বা সমাজে কি বলবে সেইভাবে টিকে রয়েছে।

সমীক্ষায় আরেকটি তথ্য পাওয়া গেছে যে, উত্তর ভারতের সবথেকে ডিভোর্সের সংখ্যা বেশি উত্তর পূর্ব ভারতের তুলনায়। সমীক্ষায় কারণ হিসাবে দেখা গিয়েছে উত্তর ভারতে বেশিরভাগ অঞ্চলে পুরুষ নিনিয়ন্ত্রাধীন। সেখানে পুরুষদের আধিপত্যের সবথেকে বেশি এর জন্য মহিলারা পুরুষদের ওপরে কোন কথাই বলতে পারে না। সব অত্যাচার সহ্য করে যায় মুখ বুঝে এবং বাধ্য হই সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে স্বামীর সাথে। কিন্তু অন্যদিকে উত্তর-পূর্ব ভারতের মহিলারা অনেক বেশি প্রতিবাদী, বেশিরভাগ মহিলারাই সেখানে চাকরি করে। এজন্য তারা দাম্পত্য জীবনে কোনো সমস্যা দেখা দিলে সেই সম্পর্ক ভেঙে দেয়।