এই গ্রামটিতে সমস্ত মানুষেরা সাধারণ মানুষের তুলনায় আয়তন এবং আকারে ছোট

9
এই গ্রামটিতে সমস্ত মানুষেরা সাধারণ মানুষের তুলনায় আয়তন এবং আকারে ছোট

গোটা বিশ্বের নানা আনাচে-কানাচে সব সময় নানান রকমের আকস্মিক ঘটনা ঘটে থাকে। সেই সমস্ত ঘটনাগুলি কখনো খুব ভালো হয়, আবার কখনো অবাক করে দেওয়ার মতোই হয়। ভারতে এরকমই একটি অবাক করা জায়গা রয়েছে যে জায়গাটির প্রতিষ্ঠা করেছেন একজন শিল্পী, সেখানকার মানুষজন খানিকটা আলাদা রকমের। গ্রামটিতে বসবাসকারী সমস্ত মানুষেরা সাধারণ মানুষের তুলনায় আয়তন এবং আকারে ছোট।

এই গ্রানটিকে সকলে বামুনগ্রাম বলেন। কিন্তু বাস্তবে এই জায়গাটির নাম হল “আমার গাঁও” যার অর্থ হলো আমার গ্রাম। এই গ্রামটি অবস্থিত ভূটান, ভারতের সীমান্তে। এই গ্রামে বামনরাই নিজেদের একটি বসতি গড়ে তুলেছে এবং এখানকার মানুষদের উচ্চতা চার ফুট এর থেকেও কম।

এই গ্রামটি প্রতিষ্ঠা করেছিলন ২০১১ সালে একজন শিল্পী। ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা থেকে স্নাতক পাস করেন এই শিল্পীর পবিত্র রাভা, যিনি এই গ্রামটিকে তৈরি করেছিলেন এবং এখানে বসবাসকারি সমস্ত বাসিন্দাদের কাছে তিনি ছিলেন সর্দার।

এই গ্রামে কেউ নিজের স্ব-ইচ্ছায় এসেছেন আবার কাউকে ছেড়ে রেখে দিয়ে গেছেন। পবিত্র রাভা এই বিষয়ে বলেন, “গোটা বিশ্বে বামুনদের নিয়ে অনেকেই হাসাহাসি করেন। আমি সেই কারণেই ভেবেছিলাম যে তাদের নিয়ে একটি গ্রাম প্রতিষ্ঠা করব”।

তারপরে আসামের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছোটো ছোটো বামন তিনি সংগ্রহ করে এখানে জড়ো করেন এবং তারপরেই বিভিন্ন থিয়েটার গ্রুপ এ কাজ করান। এছাড়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাদের ডাকা হয়। বামনদের নিয়ে নতুন একটি জীবন তৈরি, তাদের কাজ করানো এই সমস্ত কাজের পেছনেই রয়েছেন পবিত্র রাভা।