দীর্ঘ ২৩ বছর পর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে গ্রেপ্তার এক গৃহশিক্ষক

15
দীর্ঘ ২৩ বছর পর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে গ্রেপ্তার এক গৃহশিক্ষক

দীর্ঘ ২৩ বছর পর নিজের বিকৃত মানসিকতার জন্য শাস্তি পেলেন এক গৃহশিক্ষক। শিক্ষকের কৃতকর্মের জন্য তাকে জেলে পাঠালেন তারই এককালীন ছাত্রী, যিনি এখন নিজেই হংকংয়ের একজন আইনজীবী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বিকৃত মানসিকতার জেরে শ্লীলতাহানীর অভিযোগের ভিত্তিতে সম্প্রতি ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দীর্ঘ ২৩ বছর ধরে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে রাগ, ক্ষোভ, ঘেন্না, ভয়, বিদ্বেষ মনে পুষে রেখেছিলেন ওই ছাত্রী। ২৩ বছর পরেও যখন শোনেন এতগুলি বছরের শেষেও ওই শিক্ষক এতোটুকু বদলাননি, তখন আর চুপ করে থাকতে পারেননি তিনি। ওই মহিলা আইনজীবী জানিয়েছেন, এখনো ছোট ছোট মেয়েদের শিক্ষা দেওয়ার নাম করে নিজের বিকৃত ইচ্ছা পূরণ করে চলেছেন ওই শিক্ষক।

নিজের পুরনো দিনের দুঃসহ অভিজ্ঞতার কথা ভেবে অবশেষে সাহস করে ২০১৯ সালেই ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন তিনি। ৩৭ বছর বয়সী ওই আইনজীবী জানিয়েছেন, দার্জিলিঙে বসবাস করার সময ওই গৃহশিক্ষকের কাছে টিউশন পড়তেন তিনি। তখন তার বয়স মাত্র ১৪ বছর। সেই সময়ে ওই শিক্ষকের কাছে যৌন হেনস্থা শিকার হতে হয়েছে তাকে।

তিনি আরো জানিয়েছেন, ওই বয়সী মেয়েরা সাধারণত এই ধরনের অত্যাচারের কথা মুখে প্রকাশ করতে পারে না। তবে কিশোরী বয়সের ওই দুঃসহ অভিজ্ঞতার কথা কোনোদিনই ভুলতে পারেননি তিনি। তারপর যখন জানতে পারেন, ছোট ছোট মেয়েরা এখনো ওই শিক্ষকের লালসার শিকার হচ্ছে, তখন তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে বাধ্য হলেন তিনি। ইতিমধ্যেই আরও চার জন ছাত্রী ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বয়ান দিয়েছেন বলে জানা গেছে। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ওই শিক্ষককে সম্প্রতি গ্রেফতার করেছে শিলিগুড়ি পুলিশ।