পোস্ততে মিশছে ভেজাল দানা! জানুন আসল পোস্ত চেনার উপায়

17
পোস্ততে মিশছে ভেজাল দানা! জানুন আসল পোস্ত চেনার উপায়

নিরামিষে পোস্ত যেন একটা অসাধারণ উপাদান যা খাবারকে তৈরি করে ফেলতে পারে অসাধারণ, তবে এবার সেই উপায় নেই নাকি মিশছে ভেজাল। নিরামিষ এর ক্ষেত্রে পোস্ত দিয়ে অনেক কিছু বানানো যায় যা বাঙালি থেকে অন্যান্য সকলেরই ভীষণ মনের মতো একটি খাবার হয় আজ কিছুটা কম যায় না। খাদ্য রসিক যে সমস্ত বাঙালি আছে তাদের কাছে পোস্ত একটি বিশেষ উপাদান এইবার সেই সমস্ত খাদ্য রসিক দের কাছে এলো বাজে সংবাদ। জানা গেছে নাকি পোস্ততে এবার মিশছে ভেজাল এর খবর পেল পুলিশের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ।

বহুদিন থেকেই পুলিশের কাছে সে পৌঁছেছিল যে পোস্তা থানা অঞ্চলে মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ নির্দ্বিধায় ভাবে ভেজাল পোস্ত বিক্রি করা হচ্ছে। কলকাতা সহ অন্যান্য রাজ্যে পোস্তর বেশ চাহিদা তবে কলকাতার মত একটি শহরতলীর থেকে দূরে জেলাতে এই ধরনের একটি কারবার চলছে সেটা বিষয়ে কলকাতার পুলিশ খবর পায়। এরপরেই সমাধান করতে ইবির অফিসাররা পৌঁছে যায় গুপ্তা ট্রেডার্স।

অনেক আগেই খবর এসেছিল পুলিশের কাছে যে রামদানা প্রস্তুত সঙ্গে মেশানো হচ্ছে। রামদানা এমন দেখতে হয় যে পোস্তর সঙ্গে যদি মিশিয়ে দেওয়া হয় তাহলে দুটোকে আলাদা করা খুব কঠিন। অফিসাররা যখন তাদের কাছে পৌঁছায় সেই সময় হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় ভেজাল পোস্ত তৈরি করার কারবার। সেখানে গিয়ে তারা দেখে যে পোস্তর মধ্যে মিশেছে রামদানা। একদম চোখের সামনে এইরকম ভাবে ভেজাল পোস্ত বানানোর কারবার দেখতে পায় ইবির অফিসাররা।

ওখানে থাকা দুই মহিলার থেকে জানা যায় যে এক বস্তা রামদানা মেশানো হয় ৬ বস্তা পোস্তর সঙ্গে, এতে নাকি মালিকের অনেক লাভ হয়। গুপ্ত ট্রেডার্স এর অধীনে থাকা এই দুই কর্মচারী স্বীকার করে নেয় যে পোস্তর সঙ্গে রামদানা মেশানো হয়। তবে সেখানকার মালিক জানিয়েছেন এই সমস্ত কথাই মিথ্যা। তবে ইবির একজন অফিসার বলেছেন যে অনেকদিন আগে থেকেই গুপ্তা ট্রেডার্স সম্পর্কে এ ধরনের কথা তারা শুনতে পাচ্ছিলেন সেইজন্যেই তারা অবশেষে ওইখানে হানা দেয় তবে এখনো পর্যন্ত দোকানের মালিক গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং আরো তদন্ত চালানো হচ্ছে এ ব্যাপারে।