অভিনয় করা থেকে সরে দাঁড়াতে চান অভিনেত্রী মিশমি দাস

30
অভিনয় করা থেকে সরে দাঁড়াতে চান অভিনেত্রী মিশমি দাস

মডেলিং দিয়ে কেরিয়ার শুরু হলেও বর্তমানে বাংলা ধারাবাহিকের এক অতি জনপ্রিয় মুখ মিশমি দাস। ২০১৪ সালে প্রথম অভিনয় জগতে পা রাখেন মিশমি। জি বাংলার রাজযোটক সিরিয়ালে এই অভিনেত্রীর অভিনয় ছিল নজরকাড়া। তারপর বেশ কয়েকটা সিরিয়ালে অভিনয় করেছেন তিনি।

বাংলার মানুষের অন্যতম বিনোদন হল এই ধারাবাহিক। বর্তমানে এক্কেবারে এক ভিন্ন স্বাদের গল্প নিয়ে জি বাংলার পর্দায় হাজির হয়েছে একটি ধারাবাহিক ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’। খুব কম দিনের মধ্যেই এই ধারাবাহিক দর্শকদের খুব পছন্দের হয়ে উঠেছে। এখানে দুষ্টু ভিলেন রিনির চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে মিশমিকে। শুধু বাংলা ধারাবাহিকেই নয়, ইতিমধ্যেই মিশমি কাজ করছে একটি হিন্দি ধারাবাহিকেও। জি টিভির সিরিয়াল ‘রিস্তো কা মাঞ্জা’-তে অভিনেতা ক্রুশল আহুজার প্রেমিকা হিসেবে অভিনয় করছেন মিশমি।

এই মুহূর্তে খ্যাতির শীর্ষে রয়েছেন অভিনেত্রী। পেশাগত জীবনে দারুন সফল হলেও এই মুহুর্তে একেবারেই ভালো নেই অভিনেত্রী মিশমি। ব্যস্ত শিডিউলের মধ্যে একেবারে হাঁপিয়ে উঠেছেন তিনি। কিছুদিন আগেই সিরিয়ালের শ্যুটিং থেকে ব্রেক নিয়ে গোয়ার সমুদ্র পাড়ে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। তারপর থেকেই আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন মিশমি। এসবের মধ্যেই দ্রুত শ্যুটিংয়ে ফিরেছিলেন নায়িকা। কিন্তু এখন ভীষণ ক্লান্ত মিশমি,তাই এখন শুধু নিজের জন্য সময় চান নায়িকা। যোগ ব্যায়াম এবং মেডিটেশনের মাধ্যমে নিজেকে ভালো রাখার চেষ্টা করবেন বলে ঠিক করেছেন তিনি। শুধুমাত্র নিজের জন্যই আপাতত সিরিয়ালে অভিনয় করা থেকে সরে দাঁড়াতে চান অভিনেত্রী।

তাই ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ বা ‘রিসতো কা মানঝা’তে আর দেখা যাবে না তাঁকে। এ প্রসঙ্গে মিশমি জানিয়েছেন, “টেলিভিশন আমাকে জীবনে সবকিছু দিয়েছে। আমি গর্বের সঙ্গে বলতে পারি আমি নিজের পরিশ্রমের উপর ভর করেই আজ এই জায়গা পৌঁছেছি। এই সফরে অনেক মানুষ আমার পথপ্রদর্শক হয়েছে। এই অতিমারীর সময়ে জীবন, কাজ, কেরিয়ার- সবকিছুই খুব অনিশ্চিত। আমি সত্যিই সৌভাগ্যবান যে আমি ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ এবং ‘রিসতো কা মানঝা’ টিমের সঙ্গে কাজ করতে পেরেছি। টিনা আর রিনি আমার হৃদয়ের খুব কাছের।”

সেইসাথে মিশমি আরও বলেন, “শেষ কয়েক মাস আমার জন্য খুব কঠিন ছিল, আমি একইসঙ্গে দুটো মেগাতে কাজ করেছি। কিন্তু এই অতিমারী আমাকে শিখিয়েছে জীবনের কোনো কোনো সময় বিরতি নেওয়া প্রয়োজন। নিজের উপর ফোকাস করা প্রয়োজন। নিজেকে খোঁজবার নতুন যাত্রা শুরু করা উচিত। জানি না আগামীতে কী অপেক্ষা করছে আমার জন্য, তবে আমি নিজের জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করবার আগে সকলকে ধন্যবাদ জানাতে চাই, যাঁদের জন্য আমি আজ এই জায়গায়। আমি খুব বিনম্রভাবে এই সময়টায় নিজের জন্য একটু গোপনীয়তা চাইছি’।