গোয়েন্দা সূত্রে খবর, ভারতে সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপ চালাবার চেষ্টা করছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই

4
গোয়েন্দা সূত্রে খবর, ভারতে সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপ চালাবার চেষ্টা করছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই

চীনের সাথে সখ্যতা গড়তে গিয়ে ভারত বিরোধিতার পথ বেছে নিয়েছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলি। ভারতীয় গোয়েন্দা দপ্তর সূত্রে খবর, নেপালের সাথে ভারতের এই দুর্বল সম্পর্কের ফাঁক দিয়েই ভারতে সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপ চালাবার চেষ্টা করছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই। আইএসআই এর এই পরিকল্পনায় সাহায্য করছে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গী সংগঠনের প্রধান নেতা দাউদ ইব্রাহিম।

ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রে খবর, দাউদ ইব্রাহিমের সাহায্য নিয়ে নেপাল সীমান্ত দিয়ে জঙ্গি অনুপ্রবেশর চেষ্টা চালাচ্ছে পাকিস্তান। শুধু তাই নয়, একই সাথে চলছে জাল নোট পাচারের রমরমা ব্যবসা। এই তথ্য সামনে আসতেই জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা দেশের প্রতিটি নিরাপত্তা সংস্থাকে জঙ্গী কার্যকলাপের প্রতি সতর্ক করেছে। সতর্ক বার্তা পেয়েই তদন্তে নেমে পড়েছে ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলি। সীমান্তে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থা সূত্রে খবর, তদন্তের মাধ্যমে জালনোট পাচারকারী সংগঠনের খোঁজ পেয়েছেন তারা। জালনোট পাচারের অপরাধে এ পর্যন্ত বহু অপরাধীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে এখনো পর্যন্ত, জঙ্গী অনুপ্রবেশের কোনো খবর মেলেনি বলেই জানা গেছে। তবে জালনোট পাচারের অপরাধীর তালিকায় রয়েছে পাকিস্তানের এক প্রাক্তন মন্ত্রীর ছেলে এবং এক আইএসআই এজেন্ট।

উত্তর প্রদেশের পুলিশ জানিয়েছে, নেপাল এবং বাংলাদেশের সীমান্ত দিয়ে পাকিস্তান থেকে ২ হাজার এবং ৫০০ টাকার জাল ভারতীয় নোট উত্তরপ্রদেশে পাচার করছে অপরাধীরা। আর এই ষড়যন্ত্রের পিছনে রয়েছে দাউদ ইব্রাহিমের সংগঠন। গত সপ্তাহে, উত্তরপ্রদেশের বেহেডি ও পিলভিট থেকে জালনোট পাচারের অপরাধে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপরাধীদের কাছে এক লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকার জাল নোট ছিল বলে জানা যাচ্ছে। তাদের জেরা করতেই, দাউদ ইব্রাহিম এবং আইএসআই এর নতুন ষড়যন্ত্রের কথা স্বীকার করেছে তারা।