চাণক্য মতে যে মানুষ গুলো কখনোই আর্থিকভাবে সন্তুষ্ট হতে পারে না, দেখে নিন

7
চাণক্য মতে যে মানুষ গুলো কখনোই আর্থিকভাবে সন্তুষ্ট হতে পারে না দেখে নিন

চাণক্য হলেন এমন একজন ব্যক্তি, এমন একজন শিক্ষক, যিনি সমাজের প্রতিটি জিনিস কে খুব সূক্ষ্মভাবে দেখেছিলেন। তাই আজও আড়াই হাজার বছর আগে তিনি যে কথা বলে গেছেন, তা আজও এই সমাজের পক্ষে প্রযোজ্য। তিনি তার অধ্যয়ন এবং অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে একজন মানুষ কতটা দক্ষ হতে পারে এবং একইসঙ্গে সেই মানুষটির মধ্যে কি কি ঘাটতি থাকতে পারে তার একটি বর্ণনা দিয়েছিলেন।

চাণক্য নীতি অনুসারে, মানুষের এমন কিছু গুনাগুন গুলি যদি থাকে, তারা কখনোই আর্থিকভাবে সন্তুষ্ট হতে পারে না, সব সময় তাদের জীবনে অভাব-অভিযোগ লেগেই থাকে। চলুন আজ জেনে নেওয়া যাক সেই সকল গুনাগুন গুলি যা মানুষকে আর্থিকভাবে স্বচ্ছল হতে দেয় না।

১. নেতিবাচক চিন্তা ধারা: চাণক্যের মত অনুসারে, প্রত্যেক ব্যক্তিকে সর্বদা নেতিবাচক চিন্তা ভাবনা এবং কাজ করা থেকে দূরে থাকা উচিত। যখন সেই ব্যক্তির ওপর কোনো রকম নেতিবাচক চিন্তা ধারা আধিপত্য বিস্তার করতে শুরু করে, তখন ওই ধরনের মানুষের জীবনে প্রবল আর্থিক সংকট দেখা দিতে শুরু করে, কারণ লক্ষীদেবী সেইসব ঘরে কখনোই বাস করেন না, যে ঘরে সব সময় নেতিবাচক চিন্তা ধারা পোষণ করা মানুষের বসবাস হয়।

২. মন্দ কথা শুনো না এবং মন্দ কাজ করো না: যে কোন মানুষকে যথাসম্ভব মন্দ কাজ থেকে নিজেকে দূরে রাখা উচিত। এটি এমন একটি কাজ যা যেকোনো মানুষের ভেতরের মনুষত্ব কে ধ্বংস করতে শুরু করে দেয়। মন্দ কাজ করা এবং শোনার মাধ্যমে ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব এবং কর্মশক্তি লোপ পেতে শুরু করে। এর ফলে সমাজে সেই ব্যক্তির ভাবমূর্তি কলঙ্কিত হতে পারে এবং তার থেকে অন্য ব্যক্তিরা দূরত্ব সৃষ্টি করতে পারে। হাতে অর্থ থাকলেও আপনি যদি এই সব আচরণ থেকে মুক্তি না পেতে পারেন তাহলে অচিরেই আপনাকে গভীর অর্থ সংকটের সম্মুখীন হতে পারে।

৩. লোভ পরিত্যাগ করা: লোভ এমন একটি বস্তু যা একজন সফল মানুষ কেও নিস্কর্মা বানিয়ে দিতে পারে। এর ফলে একজন ব্যক্তি অত্যন্ত পরিমাণে নিষ্ঠুর এবং স্বার্থপর হয়ে ওঠে। সঠিক এবং বেঠিক এর মধ্যে পার্থক্য করতে পারে না সে। আপন ইন্দ্রিয় গুলি প্রতিদিন ক্ষীণ হতে শুরু করে দেয়। এই সমস্ত ব্যক্তিরা হাতের কাছে অর্থ পেয়েও নিজের লোভের কারণে তা অচিরেই হারিয়ে দেয়। লক্ষীদেবী কখনো লোভী মানুষকে পছন্দ করেন না। তাই লোভী মানুষের জীবনে আর্থিক সংকট কোন না কোন সময় প্রকট হয়ে ওঠে।