লজ্জায় স্কুটি নিয়ে রাস্তায় বের হতে পারছেন না দিল্লির এক তরুণী

14
লজ্জায় স্কুটি নিয়ে রাস্তায় বের হতে পারছেন না দিল্লির এক তরুণী

দিল্লির এক তরুণী সম্প্রতি নতুন স্কুটি কিনে মহা বিপদে পড়েছেন। বাবার কাছে অনেক আবদার করে স্কুটি পেলেও সেই স্কুটি নিয়ে রাস্তায় বের হতে পারছে না তিনি। স্কুটি রেজিস্ট্রেশন করে আনার পর স্কুটি নতুন নাম্বার প্লেট দেখেই চক্ষু চড়কগাছ। এরপর বিগত দুই মাস ধরে নাকি তার বাড়িতেই পড়ে রয়েছে নতুন স্কুটি। তা তিনি রাস্তায় বের করতে পারছেন না।

দিল্লি জনকপুরী এলাকার বাসিন্দা ওই তরুণী একজন ফ্যাশন ডিজাইনিং কোর্সের ছাত্রী। সেখান থেকে মেট্রো রেলে করে তিনি রোজ নয়ডায় যেতেন ক্লাস করতে। করোনা পরবর্তী পর্যায়ে মেট্রো পরিষেবা চালু হলেও এই সময় ভীড়বহুল ট্রেনে করে ক্লাসে যেতে মন চাইতো না তার।

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বাবাকে আবদার করার পর তিনি পেয়েছিলেন নতুন স্কুটি। তবে গোল বাঁধলো গাড়ির নাম্বার প্লেট নিয়ে। কারণ সেখানে তার স্কুটির আইডেন্টিফিকেশন নম্বর দেওয়া হয়েছে ‘ডিএল ৩ এসইএক্স *’ (DL 3 SEX ***)। এই নিয়ে বেজায় অস্বস্তিতে রয়েছেন ওই তরুণী। আশেপাশের সকলে তাকে নিয়ে রসিকতা করছে।

তিনি তার গাড়ির নাম্বার প্লেট বদলানোর জন্য যোগাযোগ করেছিলেন সংশ্লিষ্ট সংস্থার সঙ্গে। তবে সংস্থা জানিয়েছে একবার গাড়ির নাম্বার প্লেট বসিয়ে দেওয়া হলে তার বদল করা সম্ভব নয়। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে ওই একই সিরিজের নাম্বার প্লেট বহু স্কুটি এবং চারচাকা গাড়িতেও বসানো হয়েছে। অতএব এখন তা পরিবর্তন করা যায় না। ‌ সব মিলিয়ে বেজায় বিপাকে পড়েছেন এই তরুণী।