হাইভোল্টেজ বৈদ্যুতিন টাওয়ারে উঠে বসেছিলেন এক যুবক! নিচে নামাতেই চাইলো খাবার

10
হাইভোল্টেজ বৈদ্যুতিন টাওয়ারে উঠে বসেছিলেন এক যুবক! নিচে নামাতেই চাইলো খাবার

আজ সকাল থেকেই মালদার গাজোলের ভান্ডারিপাড়া গ্রামের বাসিন্দারা বেজায় উদ্বিগ্ন ছিলেন। কারণ? ওই গ্রামের একটি হাইভোল্টেজ বৈদ্যুতিন টাওয়ারের উপর সকাল থেকেই উঠে বসেছিলেন এক যুবক! কিছুতেই তাকে নামিয়ে আনা সম্ভব ছিল না। ঘটনা দেখে তাজ্জব হয়ে যান গ্রামবাসীরা। তারা বহু চেষ্টা করেও যুবককে নিচে নামিয়ে আনতে সক্ষম হননি। অবশেষে পুলিশ ডেকে আনতে বাধ্য হন তারা।

একটু এদিক-ওদিক হলেই অত উঁচু টাওয়ার থেকে মাটিতে পড়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনার সম্মুখীন হতে পারতেন তিনি। নতুবা বৈদ্যুতিক তারে হাত লেগে গেলেও বিপদের আশঙ্কা থেকেই যায়। অনেক বুঝিয়ে সুঝিয়েও অবশ্য তাকে নিচে নামিয়ে আনা যাচ্ছিল না। ঘতনাস্থল থেকে খবর পেয়ে পুলিশ এবং দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

তারাও বহু প্রচেষ্টা করে প্রথমে তাকে নিচে নামিয়ে আনতে পারছিলেন না। দীর্ঘ তিন ঘন্টার প্রচেষ্টার পর অবশেষে দড়ি দিয়ে তাকে নিচে নামিয়ে আনা হয়। ঠিক সেই সময় ওই যুবক পুলিশকে আকার-ইঙ্গিতে বোঝান যে তার ভীষণ খিদে পেয়েছে। তিনি তিনদিন ধরে কিছু খাননি। যুবকটিকে নিচে নামিয়ে এনে তারা তার জন্য জল এবং আপেলের ব্যবস্থা করেন। জল এবং আপেল খেয়ে অবশেষে ধাতস্থ হন ওই যুবক।

পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ওই যুবকের নাম প্রভু হেমব্রম। পুরাতন মালদার সন্ন্যাসীদিঘি এলাকার বাসিন্দা তিনি। তাকে উদ্ধার করার পর বেশ কিছু অসংলগ্ন কথা বলছিলেন তিনি। পুলিশের অনুমান, তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ।