অনামিকা মজুমদার থেকে “সুপ্রিম ইম্পেরিয়াম” নাম রাখলেন এক মহিলা

9
অনামিকা মজুমদার থেকে

নাম এবং পদবীই যেকোনো মানুষের প্রাথমিক আইডেন্টিফিকেশন হিসেবে বিবেচিত হয়। নাম অথবা পদবী নিয়ে কারোর কোনো আপত্তি থাকলে বা বিশেষ প্রয়োজনে নাম কিংবা পদবী বদলাতে হলে তার জন্য এফিডেভিটের ব্যবস্থা রয়েছে। বিভিন্ন কাজের জন্য প্রায়শই এফিডেভিট করিয়ে থাকেন অনেকে। এফিডেভিট করানোর একটি অন্যতম নিয়ম হলো আইনত নিজের নাম কিংবা পদবী পরিবর্তন করাতে হলে সংবাদমাধ্যমে একটি বিজ্ঞাপন দিতেই হয়।

বিভিন্ন নামিদামি সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপনের পৃষ্ঠাতে সাধারনত এই সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়। যারা খবরের কাগজ পড়তে অভ্যস্ত তাদের নজরে হামেশাই এমন বিজ্ঞাপন চোখে পড়ে। তবে সাম্প্রতিক কালে একটি খবরের কাগজে এফিডেভিটের যে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়েছে তা দেখে চোখ কপালে উঠেছে সংবাদপত্র পাঠকদের।

অনামিকা মজুমদার নামের এক মহিলা সম্প্রতি এফিডেভিট মারফত নিজের নাম বদলে “সুপ্রিম ইম্পেরিয়াম” রেখেছেন। এমনই একটি বিজ্ঞাপন দেখা দিয়েছে সংবাদপত্রে। ওই বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করা আছে ১লা মার্চ থেকে অনামিকা মজুমদার সুপ্রিম ইম্পেরিয়াম নামেই পরিচিত হবেন! মহিলার এই নতুন নামকরণ ঘিরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

টুইটারে এমন অদ্ভুত বিজ্ঞাপনটি প্রকাশ করেছেন এক ব্যক্তি। এরপর দ্রুত তা সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে পড়ে। ওই মহিলা নিজের এমন অদ্ভুত নাম কেন রেখেছেন সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে নেটিজেনদের মনে। অনেকে মনে করছেন নিতান্তই ভুলবশত এমন নাম ছাপা হয়েছে সংবাদমাধ্যমে। আবার অনেকে মনে করছেন এর পেছনে নিশ্চয়ই কোন অন্য উদ্দেশ্য রয়েছে ওই মহিলার। সব মিলিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া এখন মহিলার এমন অদ্ভুত নামকরণের কারণ খুঁজতে ব্যস্ত।