অন্য মহিলার সঙ্গে ফোনে কথা বলায় বয়ফ্রেন্ডের গলার নলি কেটে খুন করল এক মহিলা

25
অন্য মহিলার সঙ্গে ফোনে কথা বলায় বয়ফ্রেন্ডের গলার নলি কেটে খুন করল এক মহিলা

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের সিতাপুর এর লহরপুর থানার অন্তর্গত এলাকার একটি অবিশ্বাস্য ঘটনার কথা সকলের সামনে উঠে এসেছে। জানতে পারা গেছে যে, হল এক মহিলার সঙ্গে ফোনে কথা বলার জন্য বয়ফ্রেন্ডের গলার নলি কেটে খুন করেছে একজন মহিলা। অভিযুক্তের নাম রজনী, মৃতের নাম রাকেশ।

সর্ব ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত তিন বছর ধরে সম্পর্ক ছিল রাকেশ এবং রজনীর। মাঝে মাঝে রজনীকে দামি উপহার কিনে দিত রাকেশ। তবে ঘটনার দিন অন্য এক মহিলার সঙ্গে কথা বলা নিয়ে তাদের মতে বচসা শুরু হয়। কথা-কাটাকাটির মধ্যেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে রাজেশের গলার নলি কেটে দেয় রজনী। সঙ্গে সঙ্গে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেছে।

এই প্রসঙ্গে লহরপুরের স্টেশন হাউস অফিসার জানিয়েছেন যে, ঘটনার দিন অন্য একজন মহিলার সঙ্গে কথা বলছিলেন। রজনী যখন তাকে দু বার জিজ্ঞাসা করে যে কার সাথে কথা বলছে, তখন সেই মহিলা সম্পর্কে কিছু জানাতে অস্বীকার করে রাজেশ। এরপরই রাগের মাথায় ধারালো ছুরি দিয়ে রাজেশের গলার নলি কেটে দেয় রজনী। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে রাজেশ। শেষ পর্যন্ত গ্রামবাসীরা রাজেশ কে উদ্ধার করে নিয়ে যায় হাসপাতালে। তখন চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

এরপরই রাজেশের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করা হয় রজনীর নামে। উদ্ধার করা হয় তার রক্তমাখা ছুরি। শুধু তাই নয় ঘটনাস্থল থেকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সংগ্রহ করেছেন ফরেনসিক টিম। খুব তাড়াতাড়ি রজনী কে আদালতে তোলা হবে বলে জানানো হয়েছে।