স্বাধীনতা দিবসে রীতিমত নাচ গানের আসর বসিয়ে বিতর্কে জড়ালেন এক তৃণমূল নেতা

12
স্বাধীনতা দিবসে রীতিমত নাচ গানের আসর বসিয়ে বিতর্কে জড়ালেন এক তৃণমূল নেতা

৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান গতকাল সারা দেশ জুড়ে পালিত হয়েছে। জাতি-ধর্ম-বর্ণ, রাজনীতি নির্বিশেষে এই বিশেষ দিনটি উদযাপন করা হয়েছে। আর তা করতে গিয়েই কার্যত সমালোচনার মুখে পড়লো তৃণমূল। ভাঙড়ের কাঠালিয়া গ্রামের তৃণমূল নেতা মোদাদসের হোসেনের নেতৃত্বে স্বাধীনতা দিবসে শিল্পী এনে রীতিমত নাচ গানের আসর বসানো হয়েছিল। তবে সেই অনুষ্ঠান মঞ্চে জাতীয় পতাকা রইলো অর্ধনমিত।

এই দৃশ্য দেখেই কার্যত তৃণমূলের ওই নেতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন বিরোধীরা। প্রসঙ্গত, এর আগেও বহুবার বিতর্কে জড়িয়েছেন তৃণমূলের এই নেতা। এবার করোনার আবহে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে এবং তার সঙ্গে জাতীয় পতাকার অপমান করে ফের বিতর্কে জড়ালেন তিনি। রবিবার সকালে ভাঙড়ের কাঠালিয়াতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং স্থানীয় নেতাদের ভাষণের আয়োজন করা হয়েছিল।

তারপর সন্ধেবেলায় সেখানে ডিজে বাজিয়ে নাচ গানের আয়োজন করা হয়েছিল। ডিজে বাজিয়ে, শিল্পীর গানের তালে তালে স্টেজের সামনে হুমড়ি খেয়ে পড়েন গ্রামের বাসিন্দারা। এই নিয়ে বিতর্ক যখন তুঙ্গে তখন সাফাই স্বরূপ জানানো হয়েছে, গ্রামবাসীদের অনুরোধেই ডিজের আয়োজন করা হয়েছিল। বলা বাহুল্য, এই অনুষ্ঠানে আদতে কোনো দেশাত্মবোধক গান শোনাই যায়নি।

করোনার এই আবহে কারোর মুখে কোনো মাস্ক ছিল না। যুবক-যুবতীরা ভিড় করে উদ্দাম নৃত্য করতে শুরু করেন ওই অনুষ্ঠানে। আর এই ঘটনা সমগ্র অনুষ্ঠানের আয়োজক যিনি সেই মোদাদসের হোসেন তখন মঞ্চে বসেই সমগ্র দৃশ্য দেখছেন। এ প্রসঙ্গে তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জবাব দেন ক্লাবের ছেলেরাই সমস্ত আয়োজন করেছে। তাই তিনি এই বিষয়ে কোনো কথা বলতে পারবেন না।