সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেল আফ্রিকায় এক নতুন প্রজাতির মশা রয়েছে যা ম্যালেরিয়া সৃষ্টি করছে

5
সম্প্রতি গবেষণায় দেখা গেল আফ্রিকায় এক নতুন প্রজাতির মশা রয়েছে যা ম্যালেরিয়া সৃষ্টি করছে

সম্প্রতি একটি গবেষণায় উঠে এসেছে, আফ্রিকায় এমন এক প্রজাতির মশা রয়েছে যা ম্যালেরিয়া সৃষ্টি করছে। মশাটির প্রজাতিটির নাম হল Anopheles stephensi। এদের বাসস্থান এশিয়াতে এবং এরা সাধারণত নোংরা জলে জন্মায় না এবং পরিষ্কার জলে জন্মায় না ।এরা সাধারণত দেয়ালের থাকে জমা জলে অথবা জলের ট্যাংকের ফাটল দিয়ে ডিম পাড়ে এবং বংশবিস্তার করে।

গবেষণায় দেখা দিয়েছে এই প্রজাতির মশা গুলি সাধারণত যেখানে গরম বেশি বৃষ্টি অল্প হয় সে সব জায়গায় এই মশাগুলির সঠিক বাসস্থান। এই প্রজাতির মশাগুলি বেশিরভাগ সন্ধ্যেবেলা রাতের বেলার দিকে মানুষকে কামড়ায়। দিনের বেলায় তত বেরোওনা এই প্রজাতির মশা গুলি।

এর আগেও 2018 সালে চার লক্ষ মানুষ এই মশার কামড়ে ম্যালেরিয়ায় মত্যু হয়। এই প্রজাতির মশা সাধারণত দেওয়ালের ফাঁকে জমা জলে জন্মায় দেখে। এই মশাগুলো বেশিরভাগ আফ্রিকার গ্রামগুলিতে জন্মাচ্ছে। এই প্রজাতির মশা এতটাই ভয়ানক যে কোন ছোট পাত্রে জমা জলেও এরা ডিম পারতে সক্ষম। এই কারনবশত আফ্রিকার জিবাউটি শহরেও এই মশার উপদ্রব দেখা যাচ্ছে। ওই দেশের মানুষেরা ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে এবং অনেকের মৃত্যু ঘটেছে। এছাড়া ইথিওপিয়া ও সুইডেনেও যথেষ্ট পরিমাণে এই ম্যালেরিয়া গ্রাস করছে।

এরজন্যই আফ্রিকার গ্রামগুলি থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সমস্ত ধরনের দেয়ালের ফাটল ও জলের ট্যাঙ্ক সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে্। যাতে মশাগুলির লার্ভা নষ্ট করে দেওয়া যায় এবং বংশবিস্তার করতে না পারে। এই ব্যবস্থার মাধ্যমে আফ্রিকার মানুষদের এই ম্যালেরিয়ায় হাত থেকে বাঁচানো সম্ভব।