সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপে উস্কানি দেওয়ায় পাকিস্তানি ইমামকে জেলের সাজা দিলো প্যারিসের একটি আদালত

12
সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপে উস্কানি দেওয়ায় পাকিস্তানি ইমামকে জেলের সাজা দিলো প্যারিসের একটি আদালত

সোশ্যাল মিডিয়ায় সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপে উস্কানি দেওয়ার জের। পাকিস্তানের এক ইমামকে ১৮ মাসের জেলের সাজা দিলো ফ্রান্সের একটি আদালত। শুধু তাই নয়, সাজা কাটানোর পর ওই ইমামকে দেশ থেকে বিতাড়িত করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২৫ শে সেপ্টেম্বর প্যারিসের একটি সন্ত্রাসবাদী হামলার পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনটি উস্কানিমূলক পোস্ট করেছিলো অভিযুক্ত। তার পরিপ্রেক্ষিতেই এমন সাজা দিল প্যারিসের একটি আদালত।

পুলিশ সূত্রে খবর, ২০১৫ সালে পাকিস্তান থেকে ফ্রান্সে প্রবেশ করে লুকমান হায়দার নামক ওই পাকিস্তানি ইমাম। গত চার বছর ধরে প্যারিসেই ছিলেন ঐ ব্যক্তি। বিগত কয়েক মাস ধরে ফ্রান্সের সবচেয়ে বড় পাকিস্তানি অধ্যুষিত ভিলিয়ার্স-লে-বেল এলাকায় বসবাস করতে শুরু করে ওই ইমাম। পাকিস্তান থেকে দারিদ্র্য দূর করার উদ্দেশ্যে প্রচার চালাতো ওই ইমাম, এমনটাই দাবি করেছে সে।

ইমামের দাবি মানতে নারাজ ফ্রান্সের প্রশাসন। প্রশাসনের দাবি, প্যারিসে ইসলামিক প্রচার চালাতো ওই ইমাম। গত ২৫শে সেপ্টেম্বর প্যারিসের শার্লি এবদো (Charlie Hebdo) পত্রিকার প্রাক্তন অফিসের সামনে সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানো হয়। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত পোস্ট করে ওই ইমাম। হামলাকারীকে সমর্থন জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টে ইমাম লিখেছে, নবীর কাছ থেকে যথাযথ সম্মান এবং মর্যাদা অর্জন করেছে ওই হামলাকারী। শুধু তাই নয়, সোশ্যাল মিডিয়ার প্লাটফর্মে হামলাকারীকে “বীরপুরুষ” বলেও সম্বোধন করেছে সে।

এরপর এই সোশ্যাল মিডিয়ায় উস্কানিমূলক পোস্ট করার আরোপে প্যারিসের প্রশাসন তাকে গ্রেপ্তার করে। প্যারিসের আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলাও চলে। গত বৃহস্পতিবার সেই মামলার শুনানিতে লুকমান হায়দার নামক ওই পাকিস্তানি নাগরিককে ১৮ মাসের কারাদণ্ডের পাশাপাশি ফ্রান্স থেকে বিতাড়িত করার নির্দেশ দেয় আদালত।