স্কুল খোলার কয়েক দিন পরেই করোনা আক্রান্ত হলেন শিক্ষক এবং পড়ুয়া

4
স্কুল খোলার কয়েক দিন পরেই করোনা আক্রান্ত হলেন শিক্ষক এবং পড়ুয়া

করোনার কারণে বিগত প্রায় দশ মাস ধরে স্কুলের পঠন পাঠন বন্ধ। দেশের করোনা পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়নি। এমতাবস্থায় বেশিরভাগ রাজ্যই স্কুল খুলে শিক্ষক এবং পড়ুয়াদের মহামারীর মুখে ফেলে দেওয়ার বিপক্ষে। তবুও বেশ কিছু রাজ্য এরই মাঝে স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। স্কুল বন্ধ থাকায় ছাত্রছাত্রীরা যেভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন, তা বিবেচনা করেই কার্যত এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

তবে ভারতের করোনা পরিস্থিতি এখনও স্কুল খোলার পর্যায় পৌঁছয়নি। তার প্রত্যক্ষ প্রমাণ মিললো উড়িষ্যায়। সম্প্রতি সেই রাজ্যের সরকার দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। সেইমতো গত ৮ই জানুয়ারি থেকে উড়িষ্যার স্কুলে পঠন-পাঠন শুরু হয়। কিন্তু মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানেই করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়লেন শিক্ষক এবং পড়ুয়ারা। স্কুল খোলার পর উড়িষ্যার গণপতি জেলায় ৩১ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেল।

গণপতি জেলার চিফ মেডিক্যাল অফিসার প্রদীপ কুমার পাত্র নিজে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি জানাচ্ছেন, গত দু’দিনেই ওই জেলার ২৬ জন শিক্ষক-শিক্ষিকার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। শুধু একটি ব্লকেই ২১ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। এ ছাড়াও বহু শিক্ষক এবং পড়ুয়ার শরীরে করোনার উপসর্গ পাওয়া গিয়েছে। তাই তাদের আপাতত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, স্কুল খোলার আগে প্রত্যেক শিক্ষক এবং পড়ুয়ার করোনা টেস্ট করিয়ে তবে তাদের স্কুলে আসার অনুমতি প্রদান করা হয়েছিল। তা সত্ত্বেও সংক্রমণ রোখা গেল না। এমতাবস্থায় প্রশাসনের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। বোর্ড পরীক্ষার্থীদের কথা ভেবেই স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল। কোভিড প্রোটোকল মেনেই স্কুল গুলি খোলা হয়েছে। তবুও স্কুল খোলার দিন কয়েকের মধ্যেই করোনা আক্রান্ত হতে শুরু করেছেন শিক্ষক এবং পড়ুয়া।।