এক ঘূর্ণিঝড় আচমকাই তাণ্ডব চালালো ব্যান্ডেল চার্চ সংলগ্ন এলাকায়! ব্যাপক

27
এক ঘূর্ণিঝড় আচমকাই তাণ্ডব চালালো ব্যান্ডেল চার্চ সংলগ্ন এলাকায়! ব্যাপক

রাত পোহালেই হবে ঘূর্ণিঝড়। প্রমাদ গুনছে সমস্ত পশ্চিমবঙ্গবাসী। তার আগেই হঠাৎ করে আজ বিকেলে ব্যান্ডেল চার্চ এর মাথায় দেখা গেল একটি ঘূর্ণিঝড়। আকাশ কালো হয়ে ব্যান্ডেল চার্চ এর দিকে ধেয়ে এল এই ঘূর্ণিঝড়। মুহূর্তে ব্যান্ডেল চার্চ সংলগ্ন এলাকায় তাণ্ডব চালিয়ে দিল এই ঘূর্ণিঝড়। দোকানপাট গাছপালা মুহূর্তের মধ্যে ভেঙে গুঁড়িয়ে গেল।

হঠাৎ করে এই রকম একটি ঘটনা ঘটে যাওয়া তে এলাকাবাসী আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। মাত্র কয়েক মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায় ব্যান্ডেল চার্চ সংলগ্ন এলাকা। বেশকিছু বাড়ির টিনের চাল যেন মুহূর্তের মধ্যে হাওয়া তে উড়ে যায়। তবে স্টেশন এবং অন্যান্য এলাকায় সেইভাবে কোন প্রভাব পড়েনি।

কয়েক মুহূর্তের এই তাণ্ডবে যেন হতভম্ব হয়ে যায় স্থানীয় বাসিন্দারা। কেউ কেউ সেই মুহূর্তে ক্যামেরাবন্দী করে ফেলেন বিপর্যয়ের চিত্র। খবর পেয়েই সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান লকেট চট্টোপাধ্যায়। এলাকার দোকানদারের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

ব্যান্ডেল এর পাশাপাশি বীজপুর থানার জেঠিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বালিভারা গ্রাম কয়েক মুহূর্তের ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায়। কমপক্ষে ৭০ থেকে ৮০ টি বাড়ির টালি এবং টিনের ছাউনি উড়িয়ে নিয়ে চলে গেছে এই ঘূর্ণিঝড়। আহত ব্যক্তিদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে কল্যাণী যে এন এম হাসপাতালে।

বাড়ির ছাউনি উড়ে গিয়ে ট্রান্সফর্মার ভেঙে গেছে। ইলেকট্রিক সংযোগ সম্পূর্ণভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বালিভারা গ্রামে। পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর। হঠাৎ করে এই ভাবে একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখীন হতে হবে এমন কখনোই ভাবেনি স্থানীয় বাসিন্দারা। স্বাভাবিকভাবেই তারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন গোটা ঘটনাটিতে।