দুধের সরের উপর ছবি এঁকে তাক লাগিয়ে দিলেন বালুরঘাটের এক কলেজ পড়ুয়া

4
দুধের সরের উপর ছবি এঁকে তাক লাগিয়ে দিলেন বালুরঘাটের এক কলেজ পড়ুয়া

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে নিত্যদিন কতই না আজব ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। কত মানুষের কত দক্ষতার নজির থেকে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। এবার এক বঙ্গকন্যা সাফল্যের সাক্ষী থাকলো সোশ্যাল মিডিয়া। দুধের সরের উপর আট জন স্বাধীনতা সংগ্রামীর ছবি এঁকে তাক লাগিয়ে দিলেন বালুরঘাটের এক কলেজ পড়ুয়া। তার এই দক্ষতাকে স্বীকৃতি দিয়েছে লিমকা বুক অফ রেকর্ড।

প্রথম বর্ষের এই কলেজ ছাত্রী জাহ্নবী বসাকের পড়াশোনার পাশাপাশি ছবি আঁকার প্রতিও বেশ আকর্ষণ রয়েছে। আন্তর্জাতিক স্তরে নিজের প্রতিভাকে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন জাহ্নবী। তবে তার এই সাফল্যের পেছনে কিন্তু তার মায়ের অবদান কম নয়। আর অবশ্যই দুধের অবদান! হ্যাঁ, দুধের দৌলতেই তো এমন সফলতা অর্জন করেছেন জাহ্নবী। কিন্তু যে দুধের জন্য তার এই সাফল্য লাভ হয়েছে সেই দুধের প্রতি কিন্তু বেশ বিরূপ জাহ্নবী।

কিভাবে পেলেন এই আইডিয়া? এই আইডিয়ার পেছনে কিন্তু তার সেই দুধের প্রতি বিকর্ষণ বোধই কাজ করেছে। কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী জাহ্নবী দুধ খেতে একদমই পছন্দ করেন না। কিন্তু তার মা ও নাছোড়বান্দা। কিছুদিন আগে মায়ের দেওয়া দুধ খেতে ভুলে গিয়েছিলেন তিনি। যার ফলস্বরূপ মায়ের কাছ থেকে বকুনিও খেতে হয়। সেই বকুনি খেয়েই কিন্তু এই অভিনব ভাবনাটি তার মাথায় খেলে।

তিনি দুধের পাত্রের উপর জমে থাকা সর তুলে নিয়ে অপর একটি বাটিতে রেখে দেন। এভাবে আটটি পাত্রে সর তুলে রেখে সেই সরের উপর রং তুলি দিয়ে আট জন দেশপ্রেমিকের ছবি ফুটিয়ে তোলেন জাহ্নবী। তার হাতের গুণে দুধের সরের উপর নেতাজি, মহাত্মা গান্ধী, ভগৎ সিং, ঝাঁসির রানি লক্ষ্মীবাঈএর মত আট জন দেশপ্রেমিকের ছবি ফুটে ওঠে। নিজের উদ্যোগেই নিজের অনবদ্য কীর্তির ছবি তুলে লিমকা বুক অব রেকর্ডে পাঠিয়ে দেন জাহ্নবী। তারপরেই মিলেছে এই স্বীকৃতি।