বাঁচার তাগিদে চিতাবাঘের সঙ্গে লড়ছেন একটি বেড়াল! ভাইরাল ভিডিও

23
বাঁচার তাগিদে চিতাবাঘের সঙ্গে লড়ছেন একটি বেড়াল! ভাইরাল ভিডিও

ছোট থেকেই শুনে আসছি যুদ্ধ সব সময় সমান যোগ্যতার ব্যক্তির মধ্যে হয়। কখনও কোনও হাতির সাথে মাছির লড়াই কী সম্ভব? নিশ্চয়ই নয়। কিন্তু আজকের এই নিবন্ধে দেখানো হবে চিতাবাঘ ও বিড়ালের লড়াইয়ের দৃশ্য। কি খুব আশ্চৰ্য হচ্ছেন তো! এই লাইনগুলো পরে যতটা না অবাক হচ্ছেন, তার থেকে অনেক বেশি অবাক হবেন চিতাবাঘ ও বিড়ালের লড়াইয়ের দৃশ্য দেখে।

চিতাবাঘ ও বিড়ালের মধ্যে লড়াইয়ের ভিডিও বেশ ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওতে দেখা যায় যে, একটি কুয়োর মধ্যে আটকে পড়েছে একটি চিতাবাঘ ও একটি বিড়াল। দুজনেই বেঁচে থাকার তাগিদে নিজেদের মধ্যে লড়াই শুরু করে দেয়।

চিতাবাঘের এক থাবাতেই হয়তো শেষ হয়ে যেত বিড়ালটি। কিন্তু বিড়ালটিও ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নয়। ভিডিওতে বিড়ালের পাল্টা আক্রমণ দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে সে নিজের অধিকার সম্পর্কে ভীষণ সচেতন। বিড়ালটিও এই লড়াইয়ে থেমে থাকেনি। ভিডিওতে চিতাবাঘটিকে আক্রমণ করতে গিয়ে নখ দিয়ে আঁচড় কাটতে দেখা গিয়েছে বিড়ালটিকে।

এই চিতাবাঘ ও বিড়ালে লড়াইয়ে একটা সময় দেখা যায় যে চিতাবাঘটি পা পিছলে জলে পড়ে যাচ্ছিল। সেই জল থেকে উঠে আবার আক্রমণ করতে শুরু করে বিড়ালটিকে। যদিও শেষ অবধি কে জিতল আর কেই বা হারল তা এখনও জানা যায়নি।

ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের নাসিকে একটি কুয়োয়। ANI নামক সংবাদ সংস্থার ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওটি শেয়ার হয়েছে। ভিডিয়োটির ক্যাপশনে লেখা ছিল যে, “মহারাষ্ট্র: নাসিকে কুয়ো থেকে পড়ে যাওয়ার পর একটি চিতাবাঘ এবং একটি বিড়াল মুখোমুখি হয়”। বিড়ালটিকে তাড়া করতে গিয়ে চিতাবাঘটি পড়ে যায় কুয়োয়। পরে এটিকে উদ্ধার করে তাদের প্রাকৃতিক আবাসস্থলে ছেড়ে দেওয়া হয়”। ওই পোস্টে এও উল্লেখ করা হয়েছে যে, এই বিষয়টি সম্পর্কে পশ্চিম নাসিক বিভাগের ডেপুটি কনজারভেটর অফ ফরেস্টস, পঙ্কজ গর্গ জানিয়েছেন।

পরে আবার কমেন্ট বিভাগে ওই সংবাদ সংস্থা কমেন্ট করে জানায় যে,”তাড়া করার সময় কুয়োয় পড়ে যাওয়া চিতাবাঘ এবং বিড়াল উভয়কেই বন বিভাগ উদ্ধার করে ছেড়ে দেয়”। ভিডিওটি ইতিমধ্যে ৭৫ হাজারেরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে। ভিডিওটি বেশ আলোড়ন ফেলে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।