নিপা ভাইরাসের সংক্রমণে কেরালায় মৃত্যু এক ১২ বছর বালকের

13
নিপা ভাইরাসের সংক্রমণে কেরালায় মৃত্যু এক ১২ বছর বালকের

করোনা ভাইরাসের প্রকোপের মাঝেই ফের চোখ রাঙাচ্ছে নিপা ভাইরাস। ২০১৮ সালে এই ভাইরাস কেরালাতে রীতিমতো দাপিয়ে বেরিয়েছিল। তিন বছরের মাথায় আবার কেরালায় ফিরেছে নিপা ভাইরাস। নিপা ভাইরাসের সংক্রমণ ইতিমধ্যেই কেরালায় এক বালকের মৃত্যু হয়েছে। তার বয়স ছিল মাত্র ১২ বছর। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন নিপা ভাইরাস করোনার মতোই সংক্রমণশীল। এই ভাইরাস বাদুড়ের শরীর থেকে মানুষের শরীরে ছড়ায়।

ইতিমধ্যেই কেরালাতে তিন জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি টের পাওয়া গিয়েছে। যার মধ্যে ১২ বছর বয়সি এক বালকের মৃত্যু হয়েছে। বাকি দুজনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি টের পাওয়া গিয়েছে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত শূকর কিংবা বাদুড়ের সংস্পর্শে সরাসরি আসলে ছড়িয়ে পড়ে মানুষের শরীরে। যে বাদুরেরা ফল খেয়ে বেঁচে থাকে সেই বাদুরেরা কার্যত এই ভাইরাসের বাহক।

ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পাঁচ থেকে চোদ্দ দিনের মাথায় জ্বর, মাথার যন্ত্রণা, গা বমি বমি ভাব, মাথা ঘোরা প্রভৃতি উপসর্গ ধরা পড়ে রোগীর শরীরে। এছাড়াও, মৃগির উপসর্গ, গলায় ব্যথা, কাশি, দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যাওয়া, শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া ইত্যাদি উপসর্গ এই ভাইরাসের অন্যান্য উপসর্গের মধ্যে পড়ে। উপসর্গ দেখা দিলে যদি সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের দ্বারস্থ না হওয়া যায় তাহলে রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। ১০ থেকে ১২ দিনের মধ্যে কোনও চিকিৎসা না হলে ব্রেন ফিভারে রোগীর মৃত্যু হয়।

কেরলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীণা জর্জ জানিয়েছেন ভাইরাসের উপস্থিতি টের পাওয়া মাত্র তারা বিভিন্ন কমিটি গঠন করে সারা রাজ্যে আক্রান্তদের চিহ্নিতকরণের কাজ শুরু করেছেন। মৃত কিশোরের সংস্পর্শে যারা এসেছিলেন তাদের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।