তৃণমূলের আরও ৪১ জন বিধায়ক বিজেপিতে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন! দাবী কৈলাস বিজয়বর্গীয়র

5
তৃণমূলের আরও ৪১ জন বিধায়ক বিজেপিতে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন! দাবী কৈলাস বিজয়বর্গীয়র

আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক দল বদলের এই মরশুমে তৃণমূলের দল ভাঙার নিশ্চয় নিয়েছে বিজেপি শিবির। নিত্যদিনেই তৃণমূল শিবির থেকে একের পর এক বিধায়ক, নেতা-কর্মী, সাংসদ তৃণমূল সরকারের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিয়ে বিরোধী বিজেপি শিবিরের দিকে পা বাড়াচ্ছেন। উল্টোটাও অবশ্য ঘটছে। রাজনৈতিক নেতৃত্বরা নিজেদের সুবিধামতো দল বেছে নিচ্ছেন বিধানসভা নির্বাচনের এই প্রাক মুহূর্তে।

দলবদলে রাজনীতিতে এই মুহূর্তে বিজেপির পাল্লা সবথেকে বেশি ভারী হচ্ছে। ইতিপূর্বে তৃণমূল দল থেকে অগুনতি নেতাকর্মী বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়েছেন। বঙ্গে ঘাসফুলের বদলে পদ্ম ফুল ফোটানোর নিশ্চয় গ্রহণ করেছেন। এবার সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করার পক্ষেই তৃণমূল দলের অভ্যন্তর থেকে অন্তত আরো ৪১ জন বিধায়কের নাম পাওয়া গেল। এরা প্রত্যেকেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি শিবিরের দিকে পা বাড়াতে চান।

বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় স্বয়ং এই খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন। আজ সংবাদমাধ্যমের কাছে একটি বিবৃতি দিতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, তৃণমূলের অভ্যন্তর থেকে আরও ৪১ জন বিধায়ক বিজেপিতে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তবে ইচ্ছুক তৃণমূল কর্মীদের সকলকেই দলে নেওয়া হবে কিনা তা নিয়ে অবশ্য বিজেপি দলের অভ্যন্তরেই বেশ ধন্দ রয়েছে। কৈলাস বিজয়বর্গীয় আপাতত জানিয়েছেন, এদের সকলকেই যে দলের সদস্য করে নেওয়া হবে, এমনটা নয়।

এ সম্পর্কে তিনি আরও বলেছেন, যারা এতদিন ভালো কাজ করেছেন, বঙ্গের মানুষ যাদের ভালোবাসেন, তাদেরকেই বিজেপি দলের সদস্য করে নেওয়া হবে। পাশাপাশি মমতা সরকারের প্রতি তার হুঁশিয়ারি, আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের লড়াইয়ে বাংলা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার নির্মূল হয়ে যাবে।