পরীক্ষার প্রস্তুতি না থাকায় আত্মহত্যা করলেন তামিলনাড়ুর ৪ জন পরীক্ষার্থী

4
পরীক্ষার প্রস্তুতি না থাকায় আত্মহত্যা করলেন তামিলনাড়ুর ৪ জন পরীক্ষার্থী

সমস্ত আপত্তি, আবেদন, বিতর্ক অগ্রাহ্য করে কেন্দ্রের উদ্যোগে রবিবার দেশজুড়ে সর্বভারতীয় মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন হলো। তবে, পরীক্ষার আগেই দেশে ঘটে গেল মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। করোনা মহামারীর আবহে পরীক্ষার চাপ নিতে না পেরে মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই তামিলনাড়ুর ৪ জন পরীক্ষার্থী আত্মহত্যা করলেন। এরপর থেকেই কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে অবিলম্বে নিট পরীক্ষা তুলে দেওয়ার দাবি জানাতে থাকেন বিরোধীরা।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর পরিস্থিতিতে আগে পরীক্ষা হবে কিনা সে সম্পর্কে সন্দিহান ছিলেন বহু পড়ুয়া। ফলে অনেকেই সেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারেননি। তাই এবছর নেটের পরীক্ষা স্থগিত রাখার জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানিয়েছিল পড়ুয়ারা। কিন্তু কেন্দ্রের তরফ থেকে সেই আবেদনে সাড়া দেওয়া হয়নি। উপরন্তু সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এ বছর সেপ্টেম্বরের ১৩ তারিখেই পরীক্ষার দিন ধার্য করা হয়।

কিন্তু প্রস্তুতির অভাবে ভালো পরীক্ষা দিতে পারবেন না, এই ভয়ে গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই আদিত্য এবং জ্যোতিশ্রী। এদের মধ্যে আদিত্য গতবছর নিট পরীক্ষায় বসে ছিলেন। তবে উত্তীর্ণ হতে পারেননি। এবছর নিট পরীক্ষার জন্য আবেদন করেছিলেন তিনি। এবারও উত্তীর্ণ হতে পারবেন না, এই দুশ্চিন্তার বশে পরীক্ষার আগেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন তিনি। উল্লেখ্য তামিলনাড়ুর তরফ থেকে কেন্দ্রের কাছে আবেদন করা হয়েছিল, যাতে এবছর তামিলনাড়ুতে নিট পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়।

তবে কেন্দ্র তামিলনাড়ুর সেই আর্জিতে কান দেয়নি। এদিকে এক সপ্তাহের মধ্যেই এইভাবে চার পড়ুয়ার আত্মহত্যার ঘটনায় কেন্দ্রে সিদ্ধান্তের জোর সমালোচনা করছে তামিলনাড়ুর বিরোধী রাজনৈতিক শিবিরগুলি। তবে তামিলনাড়ুর উপমুখ্যমন্ত্রী পনিরসেলভম অবশ্য বলেছেন, ছাত্র-ছাত্রীদের যেকোনো পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার জন্য সর্বদা তৈরি থাকতে হবে। পরিবারের পাশে দাঁড়াতে শিখতে হবে। এভাবে আত্মহত্যার পথ বেছে নেওয়া কোনো সমাধান নয়।