মাদক সিন্ডিকেটের সাথে বলিউডের ২৫ জন সেলিব্রেটি জড়িয়েঃ সূত্র এনসিবি

6
মাদক সিন্ডিকেটের সাথে বলিউডের ২৫ জন সেলিব্রেটি জড়িয়েঃ সূত্র এনসিবি

গতকাল মাদকচক্রের সাথে জড়িত থাকার অপরাধে প্রয়াত বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রেমিকা তথা মডেল অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করেছে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। এ প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে এনসিবির দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল মুথা অশোক জৈন জানালেন, রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করার জন্য যথেষ্ট কারণ রয়েছে এনসিবির হাতে।

তবে রিয়ার বক্তব্যকে ঘিরে নানা ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। সুশান্ত মামলায় ড্রাগের যোগ সামনে আসতেই রিয়া প্রথম থেকেই দাবি করে আসছেন, তিনি কখনোই ড্রাগ সেবন করেননি। তবে এনসিবির দাবি, রিয়া মাদক পাচার চক্রের সক্রিয় সদস্যা ছিলেন। শুধু তাই নয়, সুশান্ত সিং রাজপুতের সাথে “মিলিত ভাবে” মাদক সংগ্রহের জন্য আর্থিক দিকটির দেখাশোনা করতেন রিয়া, বলেই দাবি করেছেন তদন্তকারীরা।

রিয়ার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী, সুশান্তের প্রাক্তন হাউস ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা, পরিচারক দীপেশ সাওয়ান্তকে জেরা করে এবং গোয়ার এক হোটেল ব্যবসায়ীর সাথে রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের কথোপকথন বিশ্লেষণ করে এনসিবি জানতে পেরেছে, মাদক সংক্রান্ত লেনদেনের সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিলেন রিয়া চক্রবর্তী। জেরার মুখে রিয়া স্বীকার করেছেন, তিনি মাদক জোগাড় করতেন, কিন্তু কখনো সেবন করেননি।

অপরদিকে একবার সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে রিয়া জানিয়েছিলেন, একবার জয়েন্ট স্মোক করেছিলেন তিনি, সুশান্তই জোর করে মাদকের নেশা ধরান তাকে। রিয়ার এই বক্তব্য যদি এনসিবির তদন্তে সত্যি প্রমাণিত হয়, তাহলে বয়ান বিভ্রাটের জেরে আবারো তার বিশ্বাসযোগ্যতা প্রশ্নের মুখে পড়বে। উল্লেখ্য, এই মাদক সিন্ডিকেটের সাথে বলিউডের আরো ২৫ জন সেলিব্রেটি নাম জড়িয়েছে বলে জানা গেছে। শীঘ্রই তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে এনসিবি।