নজরে ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন! এবার রাজ্যের বাইরেও পার্টি অফিস খুলছে তৃণমূল

11
নজরে ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন! এবার রাজ্যের বাইরেও পার্টি অফিস খুলছে তৃণমূল

তৃণমূলের নজরে ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন। এই লড়াইয়ে মোদিকে টেক্কা দিতে তাই এবার রাজ্যের বাইরেও তৃণমূল পার্টি অফিস খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের শাসক দল। সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের একাধিক জায়গায় দলীয় কার্যালয় খুলে ফেলেছে তৃণমূল। একুশের নির্বাচনে মোদি সরকারের হারের পর বিভিন্ন রাজ্যের বিজেপি বিরোধী শক্তিগুলি এখন তৃণমূলকে সমর্থন করছে। আগামী দিনে মোদি বিরোধী দলের মুখ হয়ে উঠতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেই সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে রাজনৈতিক শিবিরে।

প্রসঙ্গত সারা দেশের মধ্যে উত্তর প্রদেশকে কার্যত বিজেপির শক্ত ঘাঁটি বলে গণ্য করে রাজনৈতিক মহল। সেই উত্তর প্রদেশ যদি জয় করতে পারে তৃণমূল তাহলে দিল্লি যাওয়ার রাস্তা আপনা আপনি খুলে যাবে। তাই তৃণমূলের নজরে এখন উত্তর প্রদেশ। অতএব উত্তরপ্রদেশের একাধিক জায়গায় দলীয় কার্যালয় খুলে ফেলেছে তৃণমূল শিবির। উত্তরপ্রদেশের বরেলি, মোরাদাবাদ, আলিগড়, আগ্রা, গোরক্ষপুর, আজমগড়, বারাণসী, মির্জাপুর, এলাহাবাদে ঘাসফুল শিবিরের পার্টি অফিস খোলা হয়েছে।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে মোদি ঝড় উপেক্ষা করে বাংলায় তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠনের পর হ্যাশট্যাগ দিয়ে বাঙালি প্রধানমন্ত্রী চাই ট্রেন্ড উঠেছিল টুইটারে। ২০২৪ এ কেন্দ্রের আসন থেকে মোদি সরকারকে সরিয়ে সেই আসন দখল করতে উঠে পড়ে লেগেছে তৃণমূল। প্রসঙ্গত একুশের নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির হয়ে প্রচার চালাতে ‌এসেছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তখন যোগীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

উত্তরপ্রদেশের নেতা নীরজ রাই জানিয়েছেন, উত্তরপ্রদেশের উৎসাহিত কর্মীরা দলীয় কার্যালয় খুলেছেন। বাংলার ভোটে বিজেপির পরাজয়ের পর উত্তরপ্রদেশের মানুষেরাও উৎসাহিত হয়েছেন। উত্তরপ্রদেশ ছাড়াও ত্রিপুরা, ওড়িশা, অসম, মণিপুর, বিহার, মহারাষ্ট্র, ঝাড়খণ্ডেও পার্টি অফিস খুলতে শুরু করেছে তৃণমূল।