আগামী ২১শে সেপ্টেম্বর থেকে চলবে ২০ জোড়া ক্লোন ট্রেনঃ ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ

11
আগামী ২১শে সেপ্টেম্বর থেকে চলবে ২০ জোড়া ক্লোন ট্রেনঃ ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ

করোনা মহামারীর পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন লকডাউন চলার পর আনলক পর্বে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে দেশ। আনলক পর্বে একে একে শিল্প কলকারখানা এবং অফিস কাছারি গুলির ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নিলেও, ট্রেন পরিষেবা বেশ দেরী করেই শুরু করছে সরকার। কারণ ট্রেনে সফরকালীন দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে মে মাস থেকে স্পেশাল ট্রেন চালানো হচ্ছে। বর্তমানে, যাত্রীর চাহিদা অনুযায়ী প্রয়োজন বুঝে ধীরে ধীরে পরিবহনের স্বার্থে ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।

ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর, আগামী ২১শে সেপ্টেম্বর থেকে ২০ জোড়া ক্লোন ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ট্রেনের চাহিদা যখন বেড়ে যায়, তখন ওয়েটিং লিস্টে থাকা যাত্রীদের জন্য স্পেশাল ট্রেন চালু করা হয়, এই স্পেশাল ট্রেন গুলিকে বলা হয় ক্লোন ট্রেন। নতুন যে কুড়ি জোড়া ক্লোন ট্রেন চালু হতে চলেছে, তার মধ্যে বেশির ভাগ ট্রেনই বিহার থেকে ছাড়া হবে বলে জানা গেছে।

ভারতীয় রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান ভি কে যাদব জানালেন, যে সকল রুটে ওয়েটিং লিস্টে যাত্রীর সংখ্যা অত্যন্ত বেশি সেই সকল রুটে ক্লোন ট্রেন চালিয়ে যাত্রীদের দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এই কুড়ি জোড়া ট্রেনের মধ্যে লখনৌ এবং দিল্লির রুটের ক্লোন ট্রেনের টিকিট মূল্য জনশতাব্দি এক্সপ্রেসের সমতুল্য হবে এবং বাকি ট্রেন গুলির টিকিট মূল্য হামসাফর এক্সপ্রেসের টিকিট মূল্যের সাথে সমতুল্য হবে।

ট্রেন গুলিতে রিজার্ভেশন সিস্টেম থাকবে এবং প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়েই স্টেশন থেকে ছাড়বে। এই ক্লোন ট্রেন গুলির মধ্যে লখনৌ এবং দিল্লি রুটের ট্রেন গুলিতে ২২টি করে কোচ থাকবে বলে জানা গেছে। পাশাপাশি বাকি ১৯ জোড়া হামসাফর এক্সপ্রেসে ১৮টি করে কোচ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। রেল কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর, বিহার এবং দিল্লির মধ্যে ১০টি জোড়া ট্রেন চালানো হবে। দক্ষিণ-পশ্চিম রেলের ছটি ট্রেন চলবে এবং পশ্চিম রেলে ১০টি ট্রেন চালানো হবে।