কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা নিলেন না বিজেপির ১৫ জন বিধায়ক! বাড়ছে জল্পনা

17
কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা নিলেন না বিজেপির ১৫ জন বিধায়ক! বাড়ছে জল্পনা

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোটে খুব একটা খাতা খুলতে পারিনি বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গে বিরোধী দল হিসেবে রয়েছে বিজেপি। এবার এই বিজেপির নতুন অনেক বিধায়কই নিলেন না কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা, কারণ নিয়ে ধন্দ শুরু হয়েছে রীতিমতো।

বিজেপির কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা নিলেন না যে যে বিধায়ক তার সংখ্যাটা প্রায় ১৫ জন বলে রাজ্য বিজেপি সূত্রে খবর। দিনহাটা থেকে জয়ী নিশীথ প্রামাণিক ও শান্তিপুর থেকে জয়ী জগন্নাথ সরকার এই দুই বিজেপি বিধায়ক তাঁদের বিধায়ক পদে ইস্তফা দিয়েছেন। দু’জনেই বর্তমানে সাংসদ। তাঁরা সাংসদ পদেই থাকতে চান। তাই রাজ্য বিধানসভায় বর্তমানে বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা ৭৫ জন।

তবে অনেক বিধায়ক নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় বাহিনী প্রত্যাখ্যান করেছেন। একটি সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকারে এই বিষয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানান, যাদের নিরাপত্তা দরকার তারা আবেদন করেছিল। কিন্তু অনেকে আছেন তারা আবেদন করেননি।

তবে বিজেপির সেই সংখ্যাটা প্রায় ১৫ জন। সেই তালিকায় চন্দনা বাউড়ি আছেন। আবার শিলিগুড়ির জয়ী বিধায়করা আছেন। দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, অনেকে সিকিউরিটি নিলে তাদের রাখার জায়গা নেই বাড়িতে। সাধারণ পরিবার থেকে এসেছেন অনেক বিধায়ক।

দিলীপ ঘোষ দাবি করেছেন,”যেখানে সন্ত্রাস নেই সেই এলাকার বিধায়করা সিকিউরিটি নেননি” তিনি বলেন, “কোচবিহার থেকে নির্বাচিত বিধায়করা সিকিউরিটি নিয়েছেন। কারণ ওখানে সন্ত্রাসের পরিবেশ রয়েছে।” যাঁদের উপর হামলার আশঙ্কা রয়েছে এবং যাঁদের বিধানসভা এলাকায় সন্ত্রাস ও হিংসা চলছে তাঁরাই মূলত কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।